পিএসজিকে অবাক করে শেষ আটে ইউনাইটেড

স্পোর্টসমেইল২৪ ডেস্ক স্পোর্টসমেইল২৪ ডেস্ক প্রকাশিত: ০৩:৩৯ পিএম, ০৭ মার্চ ২০১৯
পিএসজিকে অবাক করে শেষ আটে ইউনাইটেড

ভিডিও প্রযুক্তির সহায়তায় প্রাপ্ত পেনাল্টি থেকে স্টপেজ টাইমে গোল করে মার্কোস রাশফোর্ড চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দ্বিতীয় লেগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ৩-১ গোলের জয় উপহার দিয়েছেন। আর এই জয়ে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-৩ গোলে সমতা থাকলেও এ্যাওয়ে গোলের সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে পিএসজিকে অবাক করে দিয়ে ইউরোপের সর্বোচ্চ আসরের শেষ আট নিশ্চিত করেছে ইংলিশ জায়ান্টরা।

গত মাসে প্রথম লেগে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ২-০ গোলে পরাজিত হবার পর ইউনাইটেডের সামনে শেষ আটের স্বপ্ন অনেকটা ফিকে হয়ে গেলেও দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ ওলে গানার সুলশার বারবারই বলেছিলেন আমরা পিছিয়ে থাকলেও সব কিছু এখনো শেষ হয়ে যায়নি। পার্ক ডি প্রিন্সেসে ম্যাচ শুরুর দুই মিনিটের মধ্যে রোমেলু লুকাকুর গোলে এগিয়ে যাওয়া সেই আত্মবিশ্বাসেরই বহি:প্রকাশ ছিল।

১২ মিনিটে হুয়ান বারনাট পিএসজির হয়ে গোল পরিশোধ করলেও ৩০ মিনিটে লুকাকুর গোলে আবারো এগিয়ে যায় সফরকারীরা। গত তিন ম্যাচে ইউনাইটেডের হয়ে এই বেলজিয়ান তারকার এটি ষষ্ঠ গোল ছিল। কিন্তু ম্যাচের নাটকীয়তা তখনো বাকি ছিল। স্টপেজ টাইমের চতুর্থ মিনিটে বক্সের ভিতর পিএসজি ডিফেন্ডার প্রিসনেল কিমপেমবের হাতে বল লাগলে তা ভিএআর’র সহায়তায় নিশ্চিত হন স্লোভেনিয়ান রেফারি ডামির স্কোমিনা। স্পট কিক থেকে গিয়ানলুইজি বুফনকে পরাস্ত করতে কোন ভুল করেননি রাশফোর্ড।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে এই প্রথমবারের মত ঘরের মাঠে প্রথম লেগে পরাজিত হবার পর ইউনাইটেড দ্বিতীয় লেগে জয়ী হয়ে পরের রাউন্ডে উন্নীত হলো। একইসাথে সুলশারের অধীনে টানা নয়টি এ্যাওয়ে ম্যাচে জয়লাভ করে ইউনাইটেড নতুন এক ক্লাব রেকর্ডও গড়েছে। আগেরদিন ডাচ ক্লাব আয়াক্সও একইভাবে ফিরে এসে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে পরাজিত করে ২০১৪ সালের পর প্রথমবারের মত শেষ আট নিশ্চিত করেছে।

ইউনাইটেডের এই জয়ের দিনে দারুন ছন্দে থাকা পিএসজি আরো একবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের ব্যর্থতার প্রমান দিল। এই নিয়ে টানা তৃতীয়বার ফ্রেঞ্চ জায়ান্টরা কোয়র্টার ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয়েছে। গত বছর রিয়াল মাদ্রিদের কাছে পরাস্ত হবার আগে ২০১৭ সালে বার্সেলোনার কাছে বিধ্বস্ত হয়ে বিদায় নিয়েছিল পিএসজি। তবে আগের বছরের তুলনায় এবারের পরাজয়টা ক্লাব ও ক্লাবের কাতারি মালিকের জন্য ছিল আরো বেশী দু:খজনক।

বিশেষ করে ওল্ড ট্যাফোর্ডে দুই গোলে এগিয়ে থেকেও তা কাজে লাগাতে পারলোনা থমাস টাচেলের শিষ্যরা। দলের মূল তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পে কালকের ম্যাচে একেবারের নিষ্প্রভ ছিলেন। অন্যদিকে ইনজুরির কারনে আবারো দর্শক হিসেবে মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছে নেইমারকে।

অন্যদিকে ইউনাইটেডে ছিলেননা বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়। নিষেধাজ্ঞার কারনে পল পগবার সাথে ফিটনেস সমস্যায় আরো নয়জন ছিলেন সাইডলাইনে। তা সত্তেও ইউনাইটেডে যেভাবে নিজেদের ফিরিয়ে এনেছে তাতে ইউরোপীয়ান প্রতিযোগিতায় এই ম্যাচটাকে অন্যতম স্মরণীয় ম্যাচ হিসেবে তারা মানতেই পারে। এর আগে ১৯৯৯ সালে সেমিফাইনালে ইউনাইটেড জুভেন্টাসকে ৩-২ গোলে পরাজিত করেছিল। ম্যাচটিতে তারা প্রথমে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে পরবর্তীতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

মূলত ম্যাচ শুরুর দুই মিনিটের মধ্যে লিড পাওয়াকেই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে মানা হচ্ছে। পিএসজির ডিফেন্ডার থিলো কেহরারের ব্যাক-পাস থেকে লুকাকু বল পেয়ে বুফনকে পরাস্ত করেন। এই লিড অবশ্য বেশীক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি রেড ডেলিভসরা। ১২ মিনিটে ডানি আলভেসের পাস থেকে বক্সের ভিতর এমবাপ্পের সহায়তায় বারনাট চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এবারের মৌসুমে তৃতীয় গোল করেন।

রাইট-ব্যাকে এরিক বেইলি ও মধ্যমাঠে ফ্রেড, স্কট ম্যাকটোমিনে ও আন্দ্রেস পেরেইরাকে নিয়ে সাজানো অনভিজ্ঞ একাদশ নিয়ে সুলশার মাঝে কিছুটা বিপদে পড়েছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ইউনাইটেডের পক্ষেই ম্যাচের ভাগ্য লেখা ছিল। ৪১ বছর বয়সী বুফনের জন্যও হয়তবা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাটা অধরাই রয়ে গেল।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

বার্সেলোনাকে হারিয়ে কাতালান চ্যাম্পিয়ন জিরোনা

বার্সেলোনাকে হারিয়ে কাতালান চ্যাম্পিয়ন জিরোনা

সবকিছু শেষ হয়ে গেছে: রিয়াল ডিফেন্ডার কারভাজাল

সবকিছু শেষ হয়ে গেছে: রিয়াল ডিফেন্ডার কারভাজাল

আর্জেন্টিনার হয়ে খেলতে মেসির একগাদা শর্ত

আর্জেন্টিনার হয়ে খেলতে মেসির একগাদা শর্ত

রিয়াল মাদ্রিদকে বিপাকে ফেলে শেষ আটে আয়াক্স

রিয়াল মাদ্রিদকে বিপাকে ফেলে শেষ আটে আয়াক্স