‘বাস্তবিক’ হামলার হুমকিতে রাশিয়া

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১১ এএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৭
‘বাস্তবিক’ হামলার হুমকিতে রাশিয়া

সিরিয়ায় সামরিক যুদ্ধে সরাসরি লিপ্ত হবার কারণে দেশটি জেহাদীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে। এরই মধ্যে আগামী বছর অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজনে সম্ভাব্য যে কোন সন্ত্রাসী হামলা মোকাবেলায় বিশেষ প্রস্তুতি নিয়েছে রাশিয়া।

গত এপ্রিলে সেন্ট পিটার্সবার্গের বোমা হামলার মাধ্যমে রাশিয়ার মাটিতে প্রথম কোন বড় কোন সন্ত্রাসী হামলার দৃষ্টান্ত সৃষ্টি হয়েছে। ওই হামলায় ১৫ ব্যক্তি নিহত হয়। গত আগস্টে সাইবেরিয়ায় আরেক দফা হামলায় দেশটিতে সন্ত্রাসী হামলার আতঙ্ক আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। সেখানে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় ৭ ব্যক্তিকে। যে হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামী স্টেট (আইএস)। পাশপাশি কর্তৃপক্ষ জিহাদীদের আরও কিছু হামলার সম্ভাবনা নস্যাৎ করে দিয়েছে বলে পত্রপত্রিকার রিপোর্টে বলা হয়েছে।

রাশিয়ার নিরাপত্তা বিষয়ক স্বাধীন বিশেষজ্ঞ আলেক্সান্ডার গোল্টস বলেছেন, ‘২০১৮ সালের ১৪ জুন থেকে ১৫ জুলাই বিশ্বকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট চলাকালে রাশিয়ায় সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা একটি বাস্তবিক হুমকি।’

বিগত ২০ বছর ধরেই বেশ কয়েকবার সন্ত্রাসী হামলার মোকাবেলায় অভিজ্ঞতা অর্জন করে আসছে রাশিয়া। এ সময় চেচনিয়ায় দুইবার যুদ্ধের মোকাবেলাও করেছে। তবে গত ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সমর্থনে মস্কো সিরিয়ায় সামরিক বাহিনী প্রেরণ করার পর থেকে সেখানে সন্ত্রসী হামলার মাত্রা বাড়তে থাকে।

গোল্টস বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘কর্তৃপক্ষ বলছে যে তারা আইএস নির্মূলে সফল হয়েছে। কিন্তু হাজার হাজার রুশ নাগরিক ওই জিহাদী গোষ্ঠীতে যোগ দিয়েছিল। তারা এখন দেশে ফেরার চেষ্টা শুরু করেছে।’

বিশ্বের যে কোন ক্রীড়া ইভেন্টই সন্ত্রাসী হামলার হুমকিতে রয়েছে। কারণ এ সময় চারদিকে প্রচুর ক্যামেরা থাকে যার মাধ্যমে এসব হামলার দৃশ্য সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ার সুযোগ থাকে। যার একটি প্রভাব পড়ে সব জায়গায়।


শেয়ার করুন :