মোস্তাফিজ আবিষ্কারের নেপথ্যে ছিলেন সুজন-হাথুরু

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৯:২৭ এএম, ১১ মে ২০২০
মোস্তাফিজ আবিষ্কারের নেপথ্যে ছিলেন সুজন-হাথুরু

বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের সাথে রোববার (১০ মে) রাতে ফেসবুকে লাইভ আড্ডায় মেতেছিলেন তিন সাবেক অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয়, হাবিবুল বাশার সুমন ও খালেদ মাহমুদ সুজন। আড্ডায় বাংলাদেশ ক্রিকেটের অনেক বিষয় ওঠে আসে। এর মধ্যে টাইগার পেসার কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানের ওঠে আসার গল্প শোনান সুজন।

২০১৫ সালের বিশ্বকাপের কোয়ার্টারফাইনালে খেলে বাংলাদেশ। শেষ আট থেকেই বিদায় নেয় মাশরাফির নেতৃত্বাধীন দলটি। বিশ্বকাপের কোয়ার্টারফাইনালে খেলার সুখ স্মৃতি নিয়ে দেশের মাটিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষীক সিরিজ খেলতে নামে বাংলাদেশ।

পাকিস্তানের বিপক্ষে একজন বাঁ-হাতি পেসারের খোঁজে ছিলেন বাংলাদেশের তৎকালিন কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। কী হয়েছিলো সেদিন, তা জানান সুজন। মোস্তাফিজ সম্পর্কে তামিমের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি তখন বিসিবির গেম ডেভলপম্যান্টের চেয়ারম্যান ছিলাম। হাথুরুসিংহে আমাকে জিজ্ঞেস করলেন, কোন বাঁ-হাতি পেসার আছে কি-না। আমি বললাম যে, দু’জন আছে। একজন আবু হায়দার রনি ও আরেকজন মোস্তাফিজ।’

‘আমার কথা শুনে হাথুরু জানতে চান- কে, কেমন বোলার, কার বিশেষত্ব কী? আমি বললাম রনি সুইং বোলার। আর মোস্তাফিজের বোলিংয়ে পেস আছে, সাথে ধারালো কাটারও আছে। হাথুরুসিংহে আমাকে বললেন, ছেলেটাকে দেখাতে পারবে? আমি বললাম, অবশ্যই। মোস্তাফিজ তখন সাতক্ষীরাতে। আমি ফিজকে ফোন করে, দ্রুত ঢাকায় আসতে বলি।’

সুজন বলেন, ‘ঢাকায় এসে পরদিন নেটে বোলিং করলো (মোস্তাফিজ)। হাথুরুসিংহে তাকে ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করলো। এরপর বললেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলবে মোস্তাফিজ। আর এভাবেই মোস্তাফিজের পথচলা শুরু হলো।’

২০১৫ সালের ২৪ এপ্রিল মিরপুরে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দলে সুযোগ পান মোস্তাফিজ। অভিষেকেই চমক দেখান তিনি। ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন ফিজ। পাকিস্তানের অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি ও সাবেক দলনেতা মোহাম্মদ হাফিজ ছিলেন মোস্তাফিজের শিকার।

পাকিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টি-টোয়েন্টি আশানুরুপ পারফরমেন্সে পরের সিরিজে ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডেতে অভিষেক হয় মোস্তাফিজের। ভারতের বিপক্ষে সিরিজে নিজে জাত চেনান ফিজ।

প্রথম ওয়ানডেতে ৫টি, দ্বিতীয়টিতে ৬টি ও শেষটিতে ২টি উইকেট নেন মোস্তাফিজ। এরপর থেকে বাংলাদেশ পেস অ্যাটাকের অন্যতম ভরসা হয়ে ওঠেন মোস্তাফিজ।

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

বোলিং দক্ষতায় আরও উন্নতি দরকার মোস্তাফিজের

বোলিং দক্ষতায় আরও উন্নতি দরকার মোস্তাফিজের

বাদ পড়াটা আমার শিক্ষা : মোস্তাফিজ

বাদ পড়াটা আমার শিক্ষা : মোস্তাফিজ

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী চারজন

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী চারজন

মোস্তাফিজের জন্য এটিই সেরা সময় : হাবিবুল বাশার

মোস্তাফিজের জন্য এটিই সেরা সময় : হাবিবুল বাশার