শান্তর বিশ্বাস নিউজিল্যান্ডের মাঠে ‘ইতিহাস’ লিখা সম্ভব

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৭:০৬ পিএম, ২২ ডিসেম্বর ২০২৩
শান্তর বিশ্বাস নিউজিল্যান্ডের মাঠে ‘ইতিহাস’ লিখা সম্ভব

হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর লক্ষ্য নিয়ে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে খেলতে নামবে বাংলাদেশ। সিরিজ হারলেও অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর বিশ্বাস দলগত পারফরম্যান্স করতে পারলে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে ম্যাচ জয়ের ইতিহাস রচনা করা সম্ভব। তিনি বলেন, এক বা দু’টি ব্যক্তিগত পারফরমেন্সের চাইতে দলগত অবদান বেশি প্রয়োজন।

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ হেরে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ইতিমধ্যে সিরিজ হার নিশ্চিত হয়েছে বাংলাদেশ দলের। সিরিজের শেষ ও তৃতীয় ম্যাচ খেলতে শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) মাঠে নামবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় শনিবা ভোর ৪টায় ম্যাচটি শুরু হবে।

টাইগারদের এ সফরে বৃষ্টি বিঘ্নিত প্রথম ওয়ানডেতে ৪৪ রানে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে ৭ উইকেটে হারতে হয়েছে। এতে শুধুমাত্র সিরিজ হারের স্বাদই পায়নি টাইগাররা, নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ওয়ানডেতে তাদের পরাজয়ের সংখ্যাটা ১৮তে পৌঁছেছে। স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত ওয়ানডে ম্যাচ জিততে পারেনি বাংলাদেশ।

সিরিজের শেষ ম্যাচের আগে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেছেন অধিনায়ক নাজমুল হাসান শান্ত। বলেন, “কিছু ব্যক্তিগত পারফরমেন্স থাকলেও আমরা কিন্তু দল হিসেবে খেলতে পারিনি (প্রথম দুই ম্যাচ)। আমার মতে, এটিই আমাদের হারের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।”

প্রথম দুই ম্যাচে হারলেও শান্ত বিশ্বাস করেন দলগতভাবে পারফর্ম করতে পারলে শেষ ম্যাচে জয় পাওয়া সম্ভব। শান্ত বলেন, “দলের মধ্যে আরও ভালো পারফরমেন্স ও জুটির প্রয়োজন। আমি এখনও বিশ্বাস করি নিউজিল্যান্ডের মাঠে তাদের হারানোর ক্ষমতা আমাদের আছে। আমি প্রতিটি ম্যাচকে সুযোগ হিসেবে দেখি। আমার বিশ্বাস আমরা ইতিহাসকে নতুন করে লিখতে পারবো।”

দু’টি ম্যাচে ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে মাঝারি মানের পারফরমেন্স করেছে বাংলাদেশের ব্যাটাররা। টপ অর্ডার ব্যাটাররা ইনিংসের শুরুটা ভালো করতে পারেনি, যা হারের মূল কারণ ছিল। একই সাথে শরিফুল ইসলাম ছাড়া কেউই ভালো বল করতে পারেনি। শান্তর চাওয়া, ব্যাটারদের ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে হবে।

তিনি বলেন, “টপ অর্ডারকে জ্বলে উঠতে হবে, নতুবা একজনের পক্ষে একা ম্যাচ জেতানো সম্ভব নয়। শেষ ম্যাচে ইনিংস ধরে খেলেছেন সৌম্য সরকার। তবে মুশফিক ছাড়া কেউই তাকে সঙ্গ দিতে পারেনি। নতুন খেলোয়াড় হিসেবে ভালো স্পেল বোলিং করেছেন রিশাদ হোসেন। নতুন বলে ভালো বোলিং করেছে শরিফুল। যদি দল হিসেবে খেলতে পারলে আমরা ভালো করবো।”

নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নেওয়াটা এশিয়ান দলের জন্য সব সময়ই কষ্টকর। শান্তর মতে, এ কন্ডিশনে সফল হওয়ার জন্য সবারই শরিফুল বা সৌম্যের পারফরমেন্স থেকে শেখা উচিত। তিনি বলেন, “শরিফুল ও সৌম্য যদি এ কন্ডিশনে ভালো করতে পারে, তাহলে আমাদের সবারই পারফরমেন্স করা উচিত। তারা ভালো খেলেছে। আমাদের উচিত তাদের পথ অনুসরণ করা। সফল হওয়া জন্য এবং ম্যাচ জিততে তাদের কাছ থেকে আমাদের শেখা উচিত।”


শেয়ার করুন :