মাশরাফির মতো ক্যাপ্টেন দেখিনি : হাবিবুল বাশার

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৭:৩৮ এএম, ০১ মে ২০১৯
মাশরাফির মতো ক্যাপ্টেন দেখিনি : হাবিবুল বাশার

ফাইল ছবি

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ১১ বছর আগে ঢাকরয় শেষবারের মতো দেশের হয়ে খেলতে নেমেছিলেন হাবিবুল বাশার সুমন। ৪৬ বছরের বাশার এখন বাংলাদেশের জাতীয় দলের অন্যতম প্রধান নির্বাচক। আকরাম খান ও মিনহাজুল আবেদিনের সঙ্গে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের দল বেছে নিয়েছেন তিনিও।

বাইশ গজে বাংলাদেশের উত্থানের অন্যতম কারিগর হাবিবুল বাশার। দেশের অন্যতম সেরা অধিনায়কও তিনি। সাকিব আল হাসান, মাশরাফি মর্তুজাদের দেশকে যখন কেউ পাত্তাই দিত না, তখন ক্রিকেট মানচিত্রে একটা আলাদা জায়গা করে দিয়েছিলেন ‘মিস্টার ফিফটি’।

হাবিবুল বাশার শুধুই বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা টেস্ট ব্যাটসম্যানই নন, দেশের অন্যতম জনপ্রিয় ক্রীড়া ব্যক্তিত্বও। সম্প্রতি তিনি ভারত গিয়েছিলেন চলমান আইপিএলের ধারাভাষ্য দিতে। সেখানেই তিনি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে এক দীর্ঘ সাক্ষাতকার দিয়েছেন। ক্রিকেট ও বাংলাদেশ নিয়ে নানা তথ্য ও মত জানিয়েছেন।

প্রশ্ন : খেলোয়াড়দের হাতের তালুর মতো চেনেন, বিশ্বকাপের দল (বাংলাদেশ) নিয়ে কী বলবেন?

হাবিবুল বাশার : সত্যি বলতে, দল দুর্দান্ত হয়েছে। আমি ভীষণ খুশি। এর আগে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের এতো অভিজ্ঞ দল যায়নি। এ দলের অনেকেই প্রায় একসঙ্গে ১০০-র বেশি ম্যাচ খেলেছে। ফলে এটা একটা পজিটিভ দিক। গত ২-৩ বছর ধরেই পঞ্চাশ ওভারের ফরমেটে আমরা ভালো খেলছি। আশা করছি দল এবার ইংল্যান্ডে ভালো পারফর্ম করবে।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপে ব্যাটিং অর্ডার কী রকম হতে পারে?

হাবিবুল বাশার : আমার যা মনে হয় রাইট হ্যান্ড-লেফ্ট হ্যান্ড কম্বিনেশনের কথা মাথায় রেখে তামিম আর লিটন ওপেন করবে। তিনে নামবে সৌম্য। চারে সম্ভবত সাকিব, পাঁচে মুশফিক। আমার মনে হয় এরকমই ব্যাটিং অর্ডার হতে পারে।

প্রশ্ন : দলের অধিকাংশ খেলোয়াড়েরই চোট-আঘাত রয়েছে, বিশ্বকাপে এটা কি ভোগাতে পারে?

হাবিবুল বাশার : চোটের একটা সমস্যা ছিল। কিন্তু সবই ছোটখাটো চোট, তেমন বড় নয়। তবে আমার চিন্তা দলের ফর্ম কেমন থাকবে। চোট নিয়ে একদমই ভাবছি না, ফর্মটাই আসল। এই দলটায় অভিজ্ঞতার অভাব নেই। যথেষ্ট ক্ষমতা রয়েছে বড় মঞ্চে পারফর্ম করার। দেখবেন, বিশ্বকাপে বাংলাদেশ চমকে দিতে পারে।

প্রশ্ন : আপনাদের বোলিং ইউনিট আর ইংল্যান্ডের পিচ নিয়ে কী বলবেন?

হাবিবুল বাশার : একটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে। আমরা জুনের মাঝামাঝি সময় বিশ্বকাপ খেলব। ইংল্যান্ডে তখন মিড সামার। ফলে তখন কিন্তু উইকেট পাটা থাকবে, প্রচুর রান হবে। ব্যাটসম্যানরা সুবিধা পাবে। ইংল্যান্ড যে সুইংয়ের জন্য পরিচিত, সেটা দেখতে পাব না। তবে আমার মনে হয় বোলাররা বুদ্ধি করে বল করলেই সফল হবে। আমাদের বোলিং ইউনিট বেশ ভালো। মোস্তাফিজ, রুবেল, আবু জায়েদ, মেহেদীর মতো বোলাররা রয়েছে। আশা করছি ওরা ভালো বল করবে।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপের প্রস্তুতি কেমন হয়েছে?

হাবিবুল বাশার : বিশ্বকাপের আগে শেষ আমরা নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট খেলেছি। এরপর পঞ্চাশ ওভারের ফরমেটে ঢাকা প্রিমিয়র লিগেও কিছুটা নিজেদের পরখ করে নিতে পেরেছে খেলোয়াড়রা। সামনে আয়ারল্যান্ড আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে আমরা ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলব। এটাই আমাদের কাছে দুর্দান্ত নেট প্র্যাকটিসের সুযোগ। আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ইংল্যান্ডের আবহাওয়ার অনেকটাই মিল রয়েছে। ফলে খেলোয়াড়দের বিশ্বকাপে মানিয়ে নিতে সুবিধা হবে না।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপে কতটা সুযোগ রয়েছে মাশরাফি-সাকিবদের?

হাবিবুল বাশার : এবার কিন্তু বিশ্বকাপের ফরমেটটা বদলে গেছে। কোনও গ্রুপ পর্যায়ের ম্যাচ নেই। প্রতিটা টিমই একে অপরের সঙ্গে খেলার সুযোগ পাচ্ছে। আর সেরা চারটে দল সেমিফাইনাল খেলবে। ফলে সকলেরই সুযোগ থাকছে। বাংলাদেশও শেষ চারে ওঠার ক্ষমতা রাখে। দেখা যাক, কীভাবে এগোয় সবটা। তবে ফরমেটটা বেশ চ্যালেঞ্জিং।

প্রশ্ন : ফাইনালে বাংলাদেশের কী হয়?

হাবিবুল বাশার : এটা ঠিকই বলেছেন যে, আমাদের একটা ফাইনালে ব্লকেজ রয়েছে। সে এশিয়া কাপই হোক বা নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল। আমরা ফাইনালের হার্ডল পেরোতে পারিনি। খেয়াল করে দেখবেন, আমরা খুব ছোট মার্জিনেই হেরেছি। কিন্তু ভবিষ্যতে এরকম করলে চলবে না। ফাইনাল ব্লকেজ কাটাতেই হবে।

প্রশ্ন : এবার বিশ্বকাপে কারা ফেভারিট?

হাবিবুল বাশার : শেষ কয়েক বছরের ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে অবশ্যই ভারত-ইংল্যান্ড। দুরন্ত ফর্মে রয়েছে দেশ দুটি। কিন্তু আমি ওয়েস্ট ইন্ডিজকেও লড়াইয়ে রাখব। চাইব বাংলাদেশের চোকার্স তকমাটা ঘুচে যাক এবার।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপে ক্যাপ্টেন আর কোচ কতটা ফারাক গড়ে দিতে পারবেন?

হাবিবুল বাশার : আমি মাশরাফির মতো ক্যাপ্টেন দেখিনি। বাংলাদেশের ইতিহাসে ও অন্যতম সেরা ক্যাপ্টেন। দলের প্রত্যেকে ওকে সমীহ করে। দলটাকে ভীষণভাবে তাতাতে পারে। আর কোচ শুধুই একজন দলের হেল্পিং হ্যান্ড। তার হাতে সে অর্থে কিছু থাকে না।

প্রশ্ন : আপনার ক্রিকেট কেরিয়ারে ২০০৭ বিশ্বকাপই কি সেরা মুহূর্ত?

হাবিবুল বাশার : অবশ্যই, এটা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। ওরকম একটা টুর্নামেন্টে ভারত আর দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলকে হারিয়েছিলাম। প্রথমবার সুপার এইটে গিয়েছিলাম। এরপর আর এগিয়ে না যেতে পারার আক্ষেপ রয়েছেই। তবে বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশ আর দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোই কেরিয়ারের সেরা মুহূর্ত।

প্রশ্ন : ভারতকে নিয়ে একটা প্রশ্ন, চার নম্বরে কার নামা উচিত?

হাবিবুল বাশার : ভারত দুর্দান্ত টিম। তবে ব্যাটিংটা মূলত রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি আর ধোনির উপরেই নির্ভরশীল। আমার মনে হয় চার নম্বরে রাহুলেরই খেলা উচিত। ও দারুণ ফর্মে রয়েছে।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন মাশরাফিরা

দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন মাশরাফিরা

বিশ্বকাপে সুজন, ত্রিদেশীয়তে নান্নু

বিশ্বকাপে সুজন, ত্রিদেশীয়তে নান্নু

এক নজরে মাশরাফি

এক নজরে মাশরাফি

বিশ্বকাপে সোশ্যাল মিডিয়া এড়িয়ে চলার পরামর্শ মাশরাফির

বিশ্বকাপে সোশ্যাল মিডিয়া এড়িয়ে চলার পরামর্শ মাশরাফির