জানুয়ারিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৩৩ এএম, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭
জানুয়ারিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ

টানা এক মাসেরও বেশি সময় ক্রিকেট ভক্তদের মাতিয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। বিপিএলের রেশ কাটতে না কাটতেই টাইগার ভক্তদের জন্য সুখবর। আট বছর পর ত্রিদেশীয় সিরিজের স্বাগতিক হচ্ছে বাংলাদেশ

নতুন বছরের জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুয়েকে নিয়ে দেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ। ফাইনাল দিয়ে ২৭ জানুয়ারি শেষ হবে টুর্নামেন্টটি।

২০১০ সালে ভারত ও শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে দেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ আয়োজন করেছিল বাংলাদেশ। ওই আসরের লিগ পর্বে চার ম্যাচই হারে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ দল। ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল শ্রীলংকা। এবার প্রায় আট বছর পর আবারও দেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ আয়োজন করবে বাংলাদেশ।

সূচি অনুযায়ী ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে আগামী ১০ জানুয়ারি ঢাকায় আসবে জিম্বাবুয়ে। ১১ ও ১২ জানুয়ারি অনুশীলনের পর ১৩ জানুয়ারি বিসিবি একাদশের বিপক্ষে বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে জিম্বাবুয়ে। আর ১৩ জানুয়ারি ঢাকায় আসবে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ম্যাচ দিয়ে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ। এরপর ১৭ জানুয়ারি টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে। ১৯ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

প্রথম পর্ব শেষে ২১ জানুয়ারি ফিরতি পর্বে আবারও জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কা। ২৩ জানুয়ারি ফিরতি পর্বে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ২৫ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ও আসরে চতুর্থ ম্যাচ খেলতে নামবে টাইগাররা। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২৭ জানুয়ারি। দিবা-রাত্রির প্রতিটি ম্যাচই হবে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

চারদিনের টেস্টে গোলাপি বল, দিনে ৯৮ ওভার

চারদিনের টেস্টে গোলাপি বল, দিনে ৯৮ ওভার

গেইল-ম্যাশ ঢাকাকে করলো শেষ

গেইল-ম্যাশ ঢাকাকে করলো শেষ

আইসিসির প্রস্তাবে হতাশ পাকিস্তান

আইসিসির প্রস্তাবে হতাশ পাকিস্তান

বিপিএল : মাশরাফির নেতৃত্বে ক্রিকইনফোর সেরা একাদশ

বিপিএল : মাশরাফির নেতৃত্বে ক্রিকইনফোর সেরা একাদশ