ক্রিকেটারদের জন্য আসছে বিসিবির নির্দেশনা

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ১০:৫৬ পিএম, ২১ জুন ২০২০
ক্রিকেটারদের জন্য আসছে বিসিবির নির্দেশনা

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ও জাতীয় দলের ক্রিকেটার নাজমুল ইসলাম অপুর করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর এ বিষয়ে আরও সতর্ক হচ্ছে বিসিবি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মেডিকেল বিভাগ মনে করছে, ক্রিকেটারদের জন্য একটি নির্দেশিকা প্রণয়নের এটিই সেরা সময়।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক ডা. দেবাশীষ চৌধুরী মনে করেন, তিন ক্রিকেটার (নাফিস ইকবালসহ) বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এখন এই নির্দেশিকা প্রণয়ন অনিবার্য হয়ে পড়েছে। তারা যেন ত্রাণ বিতরণ কাজে সশরীরে অংশগ্রহণ না করে।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ওপেনার নাফিস ইকবাল প্রথমে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরপর শনিবার (২০ জুন) সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ও বাঁ-হাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপুও করোনাভাইরাসে আক্রান্তের খবর আসে।

২০১৮ সালে জাতীয় দল থেকে ছিটকে পড়া অপু ফের দলে ফেরার চেষ্টায় আছেন। মাশরাফি জাতীয় দলের নেতৃত্ব থেকে সরে গেলেও অবসর গ্রহণ করেননি। বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ওয়ানডে খেলায় অংশগ্রহণের ইচ্ছা এখনো আছে।

রোবাবর (২১ জুন) দেবাশিষ চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘খেলোয়াড়দের প্রতি একমাত্র অনুরোধ তারা যেন ঘরেই থাকেন। নিতান্ত প্রয়োজন ছাড়া যেন বের না হন।’

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক বলেন, ‘মাশরাফির বিষয়টি সম্পূর্ণ আলাদা। তিনি শুধু খেলোয়াড় নন। একজন সম্মানিত সংসদ সদস্যও। তাই আইনপ্রণেতা হিসেবে নিজের এলাকায় তাকে ত্রাণ কার্যক্রমে অংশ নিতে হয়। কিন্তু অন্যান্য ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে উপস্থিত থেকে ত্রাণ বিতরণের প্রয়োজন নেই।’

মানবিক কারণে অবশ্যই করোনাকালীন সময়ে সাহায্য সহযোগিতা করা যাবে। তবে সেটা সশরীরে নয় বলেও উল্লেখ করেন ডা. দেবাশিষ। বলেন, ‘মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো সিনিয়র ক্রিকেটাররা মানুষকে সহায়তা করছেন। উপস্থিত না থেকে ভিন্ন মাধ্যমে তারা এই মানবিক কাজ করছেন।’

দেবাশীষ বলেন, ‘ক্রিকেটারদের জন্য গাইডলাইন প্রণয়নের সময় এসে গেছে। করোনাকালে কোনো ক্রিকেটারই যেন উপস্থিত থেকে ত্রাণ না দেন। মানুষকে সহায়তা করা মানবিক কাজ। স্বাভাবিকভাবেই ক্রিকেটাররা তা করবে। তবে এ বিষয়ে বিসিবির কোন নির্দেশিকা নেই। এখন সেটি করতে হবে।’

আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘৮০ ভাগ কোভিড-১৯ আক্রান্ত মানুষ ঘরে চিকিৎসা নিয়েই ভালো হচ্ছে। বাকি ২০ ভাগ আশঙ্কাজনক অবস্থায় যাচ্ছে। তাই এটিকে নিয়ে খুব বেইশ আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। যেটি করতে হবে সেটি হচ্ছে ঘরে অবস্থান করা। সেই সঙ্গে সাবধানতার সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

মাশরাফি বিন মর্তুজা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

মাশরাফি বিন মর্তুজা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

নাজমুল ইসলাম অপুও করোনা পজিটিভ

নাজমুল ইসলাম অপুও করোনা পজিটিভ

নাফিস ইকবাল করোনা আক্রান্ত

নাফিস ইকবাল করোনা আক্রান্ত

মানসিক অবসাদকে বাংলাদেশে অযুহাত ভাবা হয় : মাশরাফি

মানসিক অবসাদকে বাংলাদেশে অযুহাত ভাবা হয় : মাশরাফি