৬ উইকেট হারিয়ে ৪৫৫ রানে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৮:১৪ পিএম, ০১ এপ্রিল ২০২৪
৬ উইকেট হারিয়ে ৪৫৫ রানে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ ব্যাটারদের চরম ব্যর্থতার পর শেষ সেশনে বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন দলের দুই পেসার হাসান মাহমুদ ও খালেদ আহমেদ। তারপরও তৃতীয় দিন শেষে ৪ উইকেট হাতে নিয়ে ৪৫৫ রানে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা।

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার ৫৩১ রানের জবাবে ৮২ রানে শেষ ৯ উইকেট হারিয়ে ১৭৮ রানে অলআউট হয়ে ফলো-অনে পড়ে বাংলাদেশ। তবে বাংলাদেশকে ফলো না করিয়ে আবারও ব্যাটিংয়ে নেমে হাসান-খালেদের তোপের মুখে পড়ে তৃতীয় দিন শেষে ৬ উইকেটে ১০২ রান করেছে শ্রীলঙ্কা।

জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ১ উইকেটে ৫৫ রান। জাকির হাসান ২৮ ও নাইটওয়াচম্যান তাইজুল ইসলাম শূন্য রানে অপরাজিত ছিলেন। সোমবার তৃতীয় দিনের প্রথম এক ঘণ্টা শ্রীলঙ্কা বোলারদের দারুণভাবে সামাল দেন জাকির-তাইজুল। এ সময় টেস্ট ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফ-সেঞ্চুরির দেখা পান জাকির। হাফ-সেঞ্চুরি পর পেসার বিশ্ব ফার্নান্দোর বলে বোল্ড হন ৮টি চারে ৫৪ রান করা জাকির।

তাইজুলের সাথে জুটিতে দলকে ৪৯ রান উপহার দেন জাকির। দলীয় ৯৬ রানে জাকির ফেরার পর দ্রুত আরও ২ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এতে ৯ রানের ব্যবধানে ৩ ব্যাটারকে হারিয়ে চাপে পড়ে টাইগাররা। জাকিরের পর তাইজুলকে ২২ রানে বিশ্ব এবং বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তকে ১ রানে আউট করেন স্পিনার প্রবাথ জয়সুরিয়া।

১০৫ রানে চতুর্থ উইকেট পতনের পর বাংলাদেশকে চাপমুক্ত করার চেষ্টা করেন মমিনুল হক ও সাকিব আল হাসান। তবে ২১ রানে বেশি যেতে পারেনি মমিনুল-সাকিব জুটি। আম্পায়ার্স কলে আসিথা ফার্নান্দোর বলে লেগ বিফোর আউট হন ১৫ রান করা সাকিব।

সাকিবের বিদায়ে ক্রিজে এসে বাউন্ডারি দিয়ে রানের খাতা খোলার পরের ডেলিভারিতেই খোঁচা দিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ আউট হন লিটন দাস। আট নম্বরে নেমে একবার জীবন পেয়ে ৭ রানে বেশি করতে পারেননি শাহাদাত হোসেন। ১৪৮ রানে সপ্তম উইকেট হারিয়ে ফলো-অনে শঙ্কায় পড়ে বাংলাদেশ।

লোয়ার অর্ডারে মেহেদি হাসান মিরাজ ৭ রানে আউট হলেও স্বীকৃত বাটারদের মধ্যে ক্রিজে টিকে ছিলেন মোমিনুল হক। টেস্ট মেজাজে শ্রীলঙ্কার বোলারদের সামলানো মমিনুল শেষ পর্যন্ত আসিথার বলে লেগ বিফোর আউট হন। রিভিউ নিয়েও নিজের উইকেট বাঁচাতে পারেননি ৩টি চারে ৮৪ বলে ৩৩ রান করা মমিনুল।

শেষ ব্যাটার হিসেবে খালেদ আহমেদ আউট হলে ১৭৮ রানে গুটিয়ে ফলো-অনে পড়ে বাংলাদেশ। এ নিয়ে টানা পাঁচ ইনিংসে ২শর নীচে অলআউট হলো টাইগাররা। সবগুলোই ঘরের মাঠের টেস্টে।

বল হাতে শ্রীলঙ্কার আসিথা ৪টি, বিশ্ব ফার্নান্দো-লাহিরু কুমারা-প্রবাথ জয়সুরিয়া ২টি করে উইকেট নেন।

বাংলাদেশকে ফলো-অন না করিয়ে প্রথম ইনিংসে ৩৫৩ রানে এগিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেই বিপদে পড়ে শ্রীলঙ্কা। ১৫ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারায় তারা। ওপেনার দিমুথ করুনারত্নকে ৪ রানে বোল্ড করেন পেসার হাসান মাহমুদ। ২ রান করা কুশল মেন্ডিসের উইকেট ভাঙেন পেসার খালেদ আহমেদ।

তৃতীয় উইকেটে ৪৫ রানের জুটিতে শ্রীলঙ্কার লিড ৪শ পার করেন ওপেনার নিশান মাদুশকা ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। এ জুটিতে হাসানের বলে স্লিপে শাহাদাতকে ক্যাচ দিয়ে ৭ রানে জীবন পান ম্যাথুজ।

দলীয় ৬০ রানে মাদুশকাকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে ব্রেক-থ্রু এনে দেন হাসান। ৫টি চারে ৩৪ রান করেন মাদুশকা। এরপর নিজের পরের দুই ওভারে আরও ২ উইকেট শিকার করেন অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা হাসান। দিনেশ চান্দিমালকে ৯ ও শ্রীলঙ্কার ইনফর্ম অধিনায়ক ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে ১ রানে বিদায় দেন হাসান।

তিন ওভারে হাসানের ৩ উইকেট পতনের ধাক্কার পর খালেদের বলে ৯ রানে আউট হন কামিন্দু। এরপর দিনের বাকি ৩০ বলে অবিচ্ছিন্ন ১৩ রান যোগ করে মাঠ ছাড়েন ম্যাথুজ ও প্রবাথ জয়সুরিয়া। ম্যাথুজ ৩টি চারে ৩৯ ও জয়সুরিয়া ৩ রানে অপরাজিত আছেন। বাংলাদেশের হাসান ৫১ রানে ৪টি ও খালেদ ২৯ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন।


শেয়ার করুন :