হোয়াইটওয়াশ থেকে বাঁচলো পাকিস্তান

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৪:৩৩ পিএম, ২২ ডিসেম্বর ২০২০
হোয়াইটওয়াশ থেকে বাঁচলো পাকিস্তান

তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ টে-টোয়েন্টি জিতে নিউজিল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ থেকে বাঁচলো সফরকারী পাকিস্তান। ওপেনার মোহম্মদ রিজওয়ানের ৮৯ রানের সুবাদে তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৪ উইকেটে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের স্বাদ পায় পাকিস্তান।

প্রথম দুই ম্যাচ যথাক্রমে ৫ ও ৯ উইকেটে জিতেছিল নিউজিল্যান্ড। শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের জয়ে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতলো কিউইরা।

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে আগে ব্যাট করে হেরেছে পাকিস্তান। তাই এবার টস জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় সফরকারীরা। ব্যাট হাতে শুরুটা ভালোই ছিল নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও টিম সেইফার্টের। ২৭ বলে ৪০ রানের সূচনা করেন তারা। তবে দলীয় ৪০ থেকে ৫৮ রানে পৌঁছাতে ৩ উইকেট হারিয়ে বসে নিউজিল্যান্ড।

১৯ রান করা গাপটিলকে শিকার করেন পাকিস্তানের পেসার হারিস রউফ। ২০ বলে ২টি চার-৩টি ছক্কায় ৩৫ রান সেইফার্ট ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে ১ রানে বিদায় দেন পাকিস্তানের ডান-হাতি পেসার ফাহিম আশরাফ। চতুর্থ উইকেটে ৪১ বলে ৫১ রানের জুটি গড়ে নিউজিল্যান্ডকে ভালো অবস্থায় নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ডেভন কনওয়ে ও গ্লেন ফিলিপস।

২০ বলে ৪টি চারে ৩১ রান করে ফিরেন ফিলিপস। তবে ইনিংসের শেষ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করে নিউজিল্যান্ডকে ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৭৩ রানের বড় সংগ্রহই এনে দেন কনওয়ে। শেষ ওভারের তৃতীয় বলে রউফের দ্বিতীয় শিকার হওয়ার আগে ৬ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ পান কনওয়ে।

৪৫ বলে ৭টি চার ও ১টি ছক্কায় ৬৩ রান করেন তিনি। শেষ দিকে স্কট কুগিলিজেন ৬ বলে ঝড়ো ১৪ রান করেন। পাকিস্তানের ফাহিম ৩টি, রউফ-আফ্রিদি ২টি করে উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ১৭৪ রানের লক্ষ্যে ৪০ রানের সূচনা ছিল পাকিস্তানেরও। ওপেনার হায়দার আলিকে ১১ রানে থামান পেসার কুগিলিজেন। আগের ম্যাচে চার নম্বরে নেমে ৯৯ রান করা মোহাম্মদ হাফিজ আজ তিন নম্বরে নেমে আরেক ওপেনার রিজওয়ানের সাথে জুটি বাঁধেন। রানের গতি ধরে রেখে ১৩তম ওভারেই দলের স্কোর শতরানে পৌঁছে দেন রিজওয়ান ও হাফিজ।

একই ওভারে নিজের মোকাবেলা করা ৪০ বলে টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন রিজওয়ান। পরের ওভারে হাফিজকে শিকার করে জুটি ভাঙেন কুগিলিজেন। ৫১ বলে ৭২ রান যোগ করেন রিজওয়ান ও হাফিজ। ২টি চার ও ৩টি ছক্কায় ২৯ বলে ৪১ রান করেন হাফিজ।

হাফিজ যখন বিদায় নেন তখন আস্কিং রেট ওভার প্রতি ১০-এর বেশি। ৩৯ বলে ৬২ রানের দরকার পড়ে পাকিস্তানের।
১৬তম ওভারে ১৭, ১৭তম ওভারে ১৩ ও ১৮তম ওভারে ১৩ রান পায় পাকিস্তান। এতে ম্যাচ জিততে শেষ ১২ বলে ১১ রান প্রয়োজন পড়ে পাকিস্তানের। এ সময় রিজওয়ানের সঙ্গী ছিলেন খুশদিল শাহ ও ফাহিম। খুশদিল ১৩ রানে বিদায় নেন।

১৯তম ওভারের প্রথম দুই বলে ফাহিম ও অধিনায়ক শাদাবকে শিকার করে ম্যাচে উত্তেজনা তৈরি করেন নিউজিল্যান্ডের টিম সাউদি। তবে ওই ওভারের শেষ তিন বলে ৭ রান নিয়ে পাকিস্তানকে জয়ের কাছে নিয়ে যান সাত নম্বরে নামা ইফতেখার আহমেদ। শেষ ওভারে ৪ রান দরকার পড়ে পাকিস্তানের।

শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে পাকিস্তানের জয়ের প্রধান নায়ক রিজওয়ানকে বিদায় দেন নিউজিল্যান্ডের কাইল জেমিসন। ৫৯ বলে ১০টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৮৯ রান করেন ম্যাচ সেরা রিজওয়ান। আর চতুর্থ বলে ছক্কা মেরে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা থেকে রক্ষা করেন ইফতেখার। ৭ বলে ১টি করে চার-ছক্কায় অপরাজিত ১৪ রান করেন ইফতেখার।

নিউজিল্যান্ডের সাউদি ও কুগিলিজেন ২টি করে উইকেট নেন। সিরিজ সেরা হয়েছেন নিউজিল্যান্ডের টিম সেইফার্ট। ২৬ ডিসেম্বর থেকে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু করবে পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ড।

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ] 


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

আমিরের কাঠগড়ায় মিসবাহ-ওয়াকার

আমিরের কাঠগড়ায় মিসবাহ-ওয়াকার

দীর্ঘায়িত হলো বাবরের টেস্ট নেতৃত্ব, নতুন মুখ ইমরান

দীর্ঘায়িত হলো বাবরের টেস্ট নেতৃত্ব, নতুন মুখ ইমরান

পুরো সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন বাবর

পুরো সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন বাবর

পাকিস্তান সফর নিশ্চিত করলো দক্ষিণ আফ্রিকা

পাকিস্তান সফর নিশ্চিত করলো দক্ষিণ আফ্রিকা