পিএসজিকে টিকিয়ে রাখলো ডি মারিয়া

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫০ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০১৮
পিএসজিকে টিকিয়ে রাখলো ডি মারিয়া

ইনজুরি টাইমে ডি মারিয়ার গোলে নাপোলির বিপক্ষে বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের হোম ম্যাচে ২-২ গোলের ড্র নিয়ে কোনরকমে রক্ষা পেয়েছে প্যারিস সেইন্ট-জার্মেই।

প্যারিসের পার্ক ডি প্রিন্সেসের মাঠে ইনজুরির টাইমের তৃতীয় মিনিটে ডি মারিয়ার কার্লিং শটে গোলের আগ পর্যন্ত পিএসজির পরাজয় অনেকটাই অবাধারিত ছিল। এই এক পয়েন্টে গ্রুপ সি’ থেকে এখনো শেষ ১৬’র সম্ভাবনা কিছুটা হলেও টিকিয়ে রাখলো পিএসজি। দিনের আরেক ম্যাচে রেড স্টার বেলগ্রেডকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে তিন ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে এখনো গ্রুপের শীর্ষ দল হিসেবেই আছে লিভারপুল। এক পয়েন্ট পিছিয়ে নাপোলি দ্বিতীয় ও দুই পয়েন্ট পিছিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে পিএসজি।

লোরেনজো ইনসিগনের গোলে প্রথমার্ধে এগিয়ে গিয়েছিল নাপোলি। মারিও রুইয়ের আত্মঘাতি গোলে ৬১ মিনিটে সমতা ফেরায় স্বাগতিকরা। এরপর ৭৭ মিনিটে ড্রিয়েস মার্টিনসের গোলে আবারো জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকে ইতালিয়ান জায়ান্টরা। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ডি মারিয়া ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। এরপরেও অবশ্য এক পয়েন্ট পেয়েই সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে নাপোলি। অন্যদিকে এই ড্রয়ে শেষ পর্যন্ত ইউরোপীয়ান সর্বোচ্চ আসরে পিএসজি কিছুটা হলেও নিজেদের লড়াইয়ে ফিরিয়ে আনতে পেরেছে।

ম্যাচ শেষে নাপোলির কোচ কার্লো আনচেলত্তি বলেছেন, ‘আমরা ভাল খেলেছি। তবে আমি মনে করি আজকের ম্যাচে জয়টা আমাদের প্রাপ্য ছিল। কিন্তু পিএসজি আসলে এমনই। তাদের দলে তেমনই দক্ষতা সম্পন্ন খেলোয়াড় রয়েছে। ঘরের মাঠে আমাদের আরেকটি সুযোগ আছে। আশা করছি ঐ ম্যাচে কিছু একটা করে দেখাতে পারবো।’

এ্যাওয়ে ম্যাচে এটা নাপোলির এ পর্যন্ত সবচেয়ে স্বয়ংসম্পূর্ণ পারফরমেন্স ছিল। কিন্তু পিএসজির নেইমার-কিলিয়ান এমবাপে-এডিনসন কাভানিকে নিয়ে গড়া আক্রমনভাগ পুরো ম্যাচের মূল কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছিল। ঘরের বাইরে তো বটেই ঘরের মাঠেও যারা ইতোমধ্যেই নিজেদের প্রমান করেছে। পিএসজি কোচ থমাস টাচেল বলেছেন, ‘ইতালিয়ান যেকোন দলের বিপক্ষে ম্যাচগুলো সবসময়ই জটিল হয়ে উঠে। কারন তাদের সংষ্কৃতি তাই প্রমান করে। আজকের ম্যাচেও তার ব্যতিক্রম ছিলনা। আমরা ইতালিয়ান কোন দল নই, আমরা এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ নই, আমরা পিএসজি এবং আমাদের নিজস্ব স্টাইল আছে। তারা দীর্ঘদিন একসাথে খেলছে, আর আমরা মাত্র ১১ সপ্তাহ একসাথে হয়েছি। কিন্তু আমাদের অবশ্যই উন্নতি হয়েছে যা ম্যাচের পারফরমেন্সে ধরা পড়ছে।

এ্যানফিল্ডে লিভারপুলের কাছে মৌসুমের প্রথম ম্যাচে ৩-২ গোলে পরাজিত হবার পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিএসজির দক্ষতা নিয়ে শঙ্কা দেখা দেয়। যদিও পরের ম্যাচে রেড স্টারকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে লড়াইয়ে ফিরে আসে প্যারিসের জায়ান্টরা। ২০১৩ সালে মাদ্রিদে যাবার আগে আনচেলত্তির অধীনেই পিএসজি লিগ ওয়ানের শিরোপা জিতেছিল। এর আগে বছরখানেক আগে বায়ার্ন মিউনিখের কোচ হিসেবে পাক ডি প্রিন্সেসে এসেছিলেন। কিন্তু ম্যাচটিতে ৩-০ গোলে পরাজিত হওয়ায় বায়ার্নের চাকুরি হারাতে হয়েছিল।

এবার আনচেলত্তির অধীনে নাপোলি লম্বা সময় ধনে ভাল খেলছে। সর্বশেষ ইউরোপীয়ান ম্যাচে লিভারপুলকে ১-০ গোলে পরাজিত করেছে। গতকাল ম্যাচের শুরুতে মারিও রুইয়ের ক্রসে মার্টিনেস নাপোলিকে এগিয়ে দেবার সুযোগ হাতছাড়া করেন। কিন্তু ২৯ মিনিটে হোসে ক্যালেয়নের দুর্দান্ত পাস থেকে ইনসিগনে এগিয়ে আসা পিএসজি গোলরক্ষক আলফোনসে আরেয়োলাকে পরাস্ত করলে নাপোলি এগিয়ে যায়। বিরতির সাত মিনিট আগে নেইমারের পাস থেকে এমবাপের শট ডেভিড ওসপিনা আটকে দিলে সমতায় ফেরা হয়নি পিএসজির।

বিরতির পর সেন্টার-ব্যাক থিলো খেরারের স্থানে হুয়ান বারনাটকে মাঠে নামান টাচেল। ৬১ মিনিটে এমবাপে, নেইমারের পা ঘুড়ে বল চলে যায় থমাস মেনিয়ারের কাছে। ডান দিক থেকে তার লো বল রুইয়ের পায়ে লেগে জালে জড়ালে সমতায় ফেরে পিএসজি। ৭৭ মিনিটে মার্টিনস আবারো নাপোলিকে এগিয়ে দিলে স্বাগতিক সমর্থকরা হতাশ হয়ে পড়ে। কিন্তু ম্যাচের নাটকীয়তা তখনো বাকি ছিল। ৯৩ মিনিটে জুলিয়ান ড্রাক্সলারের বাড়ানো বলে ২০ গজ দুর থেকে ডি মারিয়ার দুর্দান্ত কার্লিং শট জালে প্রবেশ করলে দারুন এক ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

২ বছর পর পর মিনি বিশ্বকাপ ফুটবল

২ বছর পর পর মিনি বিশ্বকাপ ফুটবল

বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ: ফাইনালে রাজশাহী-রংপুর

বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ: ফাইনালে রাজশাহী-রংপুর

মেসিকে ছাড়াই ইন্টারকে হারিয়ে বার্সার জয়

মেসিকে ছাড়াই ইন্টারকে হারিয়ে বার্সার জয়

পাকিস্তানের জালে ভারতীয় মেয়েদের ১৮ গোল

পাকিস্তানের জালে ভারতীয় মেয়েদের ১৮ গোল