সেপ্টেম্বরে মাঠে ক্রিকেট ফেরাচ্ছে আফগানিস্তান

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৪:০৪ পিএম, ১৯ জুলাই ২০২০
সেপ্টেম্বরে মাঠে ক্রিকেট ফেরাচ্ছে আফগানিস্তান

করোনা পরবর্তী সময়ে ইতোমধ্যেই অনুশীলনে ফিরেছে আফগানিস্তানের ক্রিকেটাররা। ক্রিকেটারদের অনুশীলনে ফেরানোর পর এবার মাঠে ক্রিকেট ফেরাতে যাচ্ছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)। সেপ্টেম্বরে শুরু হতে যাচ্ছে শাপাগিজা ক্রিকেট লিগের সপ্তম আসর।

করোনার কারণে দীর্ঘদিন খেলাধুলা বন্ধ থাকার পর জুলাই থেকে মাঠে ফিরেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। যেখানে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আতিথেয়তা দিচ্ছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ডে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরলেও সহসায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরছে না আফগানিস্তানে। করোনার কারণে বেশিরভাগ সিরিজ স্থগিত হওয়ায় ঘরোয়া ক্রিকেট দিয়ে মাঠে ফিরছে রশিদ খান-নাবীরা।

১৩ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে আফগানিস্তানের ঘরোয়া টুর্নামেন্ট শাপাগিজা ক্রিকেট লিগ। ৬ দলের এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করার বিষয়টি শনিবার (১৮ জুলাই) নিশ্চিত করেছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)।

১৩ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে টানা দুই সপ্তাহ চলবে টুর্নামেন্টটি। টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২৫ সেপ্টেম্বর। টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে কাবুল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এবারও ছয় দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হবে এই আসরটি। দলগুলো হচ্ছে অ্যামো শার্কস, বান্দে আমির ড্রাগন্স, বুস্ট ডিফেন্ডার্স, কাবুল ঈগলস, মিস আয়নাক নাইটস এবং স্পিন ঘার টাইগার্স।

সর্বশেষ আসরে শিরোপা জিতেছিল মিস আয়নাক নাইটস। টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচই লাইভ দেখানোর ব্যবস্থা করেছে এসিবি। সবগুলো ম্যাচই সম্প্রচার করবে স্পোর্ট আরটিএ। ইতোমধ্যে তাদের সাথে চুক্তিও সম্পন্ন করেছে বোর্ড।

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

সাকিবের পর রোস্টন চেজ

সাকিবের পর রোস্টন চেজ

তিন দলের টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন ডি ভিলিয়ার্সের ঈগলস

তিন দলের টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন ডি ভিলিয়ার্সের ঈগলস

আজহারের স্ত্রীর জন্য দর্শককে মারতে গিয়েছিলেন ইনজামাম

আজহারের স্ত্রীর জন্য দর্শককে মারতে গিয়েছিলেন ইনজামাম

কালো বলে আমাকে অবজ্ঞা করতো : এনটিনি

কালো বলে আমাকে অবজ্ঞা করতো : এনটিনি