হারের বৃত্তেই সিলেট, রংপুরের চতুর্থ জয়

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৯:১৬ এএম, ০৩ জানুয়ারি ২০২০
হারের বৃত্তেই সিলেট, রংপুরের চতুর্থ জয়

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে হারের বৃত্তেই রয়েছে সিলেট থান্ডার। নিজেদের মাঠে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম ম্যাচে পর দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরে গেলে সিলেট। রংপুর রেঞ্জার্সের কাছে ৩৮ রানে হেরে গেছে স্বাগতিক সিলেট থান্ডার।

শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৯৯ রান সংগ্রহ করে রংপুর রেঞ্জার্স। দলের পক্ষে অধিনায়ক শেন ওয়াটসন ৩৬ বলে ৬৮ রান করেন। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৯ ওভার ১ বলে ১৬১ রান করে গুটিয়ে যায় সিলেট থান্ডার। এ জয়ে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে প্লে-অফের আশা বাঁচিয়ে রাখলো রংপুর।

টুর্নামেন্টে নিজেদের ১০ খেলায় ৪ জয় ও ৬ হারে ৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ষষ্ঠস্থানে রংপুর। ৯ খেলায় ৮ পয়েন্ট রয়েছে কুমিল্লারও। তবে রান রেটে পিছিয়ে ষষ্ঠস্থানে রংপুর। আর ১০ ম্যাচে মাত্র ১ জয় ও ৯ হারে ২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে সিলেট। প্লে-অফের খেলার আশা শেষ হয়ে গেছে সিলেটের।

ম্যাচে টস জিতে রংপুরকে প্রথমে ব্যাটিং করতে পাঠায় সিলেট। ব্যাট হাতে রংপুরের ইনিংস শুরু করেন মোহাম্মদ নাইম ও অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়াটসন। তবে সঠিক সময় ঠিকই জ্বলে উঠেছেন ওয়াটসন। এখন পর্যন্ত চারটি ম্যাচ খেলে তার স্কোর- ৫,১,৭ ও ২। ফলে আজ শুরু থেকে সতর্ক ছিলেন ওয়াটসন।

শুরুতে দ্রুত রান তোলার কাজটি করেন নাইম। প্রথম দু’ওভারেই ৩টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন তিনি। তাই ২ ওভারে ২০ রান উঠে রংপুরের। তৃতীয় ওভারে বাউন্ডারি হাঁকান ওয়াটসন। তবে পঞ্চম ওভারে স্পিনার নাইম হাসানের উপর চড়াও হন ওয়াটসন। ওভারের শেষ চার বলে যথাক্রমে- ৬, ৬, ৪, ৪ রান নেন ওয়াটসন।

নাইম-ওয়াটসনের ব্যাটিং ঝড়ে ৮ ওভারে ৭৩ রান পায় রংপুর। কিন্তু নবম ওভারে প্যাভিলিয়নে ফিরেন নাইম। ৭টি চার ও ১টি ছক্কায় ৩৩ বলে ৪২ রান করেন নাইম। ৭৭ রানের উড়ন্ত সূচনার পর দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যামেরন ডেলপোর্টকে নিয়ে রানের চাকা দ্রুত ঘুড়ানোর কাজটা ভালোভাবেই করেন ওয়াটসন।

৩১ বলে নিজের হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ওয়াটসন। হাফ-সেঞ্চুরিতে পা দিয়ে স্পিনার সোহাগ গাজীকে ২টি ছক্কা ও ১টি চার মারেন তিনি। এরপর ১৫তম ওভারে পরপর দু’বলে ডেলপোর্ট-ওয়াটসনকে বিদায় দেন সিলেটের পেসার এবাদত। ৬টি চার ও ৫টি ছক্কায় ৩৬ বলে ৬৮ রান করেন ওয়াটসন। ১৮ বলে ২টি ছক্কায় ২৫ রান করেন ডেলপোর্ট।

দলীয় ১৩৮ রানে ডেলপোর্ট-ওয়াটসনের বিদায়ের পর দলকে বড় সংগ্রহ এনে দিয়েছেন ইংল্যান্ডের লুইস গ্রেগরি-আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী ও ফজলে মাহমুদ। ফলে ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৯৯ রানের বড় সংগ্রহ পায় রংপুর। এবারের আসরে এটিই রংপুরের সর্বোচ্চ দলীয় রান। সিলেটের এবাদত ৩০ রানে ২ উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ২০০ রানের বিশাল টার্গেটের জবাব দিতে নেমে প্রথম ৩ ওভারে ২৭ রান তুলে সিলেট। ১২ বলে ১টি চার ও ২টি ছক্কায় ১৯ রান করে ফিরেন অধিনায়ক আন্দ্রে ফ্লেচার। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে উইকেটে গিয়েই মারমুখী হন মোহাম্মদ মিঠুন। তার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৫ ওভারেই ৪৯ রান পেয়ে যায় সিলেট। পাওয়ার প্লে’র শেষ ওভারে আউট হন আরেক ওপেনার আব্দুল মাজিদ, ৭ রান করেন তিনি।

৫০ রানে দ্বিতীয় উইকেট পতনের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের শেরফেন রাদারফোর্ডকে নিয়ে ২৪ বলে ৩৮ রান যোগ করেন মিঠুন। ৪টি চারে ২২ বলে ৩০ রান করে থামেন তিনি। স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের মধ্যে রাদারফোর্ডই ছিলেন দলের শেষ ভরসা।

বৃহস্পতিবার কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে ৩১ বলে ৫২ রান করা সোহাগ গাজী আজ ব্যর্থ হন। ১ রানে থামেন তিনি। তবে এক প্রান্ত আগলে লড়াই চালিয়ে যান রাদারফোর্ড। ৩১তম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে শেষ পর্যন্ত রান আউটে কাটা পড়েন তিনি।

১৭তম ওভারে দলের সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে রাদারফোর্ডের আউটের পরই সিলেটের জয়ের আশা শেষ হয়ে যায়। ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৩৭ বলে ৬০ রান করেন রাদারফোর্ড। শেষ পর্যন্ত ১৬১ রানে অলআউট হয় সিলেট। রংপুরের মোস্তাফিজুর-তাসকিন-গ্রেগরি ২টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
রংপুর রেঞ্জার্স : ১৯৯/৫, ২০ ওভার (ওয়াটসন ৬৮, নাইম ৪২, এবাদত ২/৩০)
সিলেট থান্ডার : ১৬১/১০, ১৯.১ ওভার (রাদারফোর্ড ৬০, মিঠুন ৩০, মোস্তাফিজ ২/১৮)।

ফলাফল : রংপুর রেঞ্জার্স ৩৮ রানে জয়ী
ম্যাচ সেরা : শেন ওয়াটসন (রংপুর রেঞ্জার্স)।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

বিপিএলে মুশফিকের অনন্য মাইলফলক

বিপিএলে মুশফিকের অনন্য মাইলফলক

খুলনাকে হারিয়ে প্লে-অফের আরও কাছে ঢাকা

খুলনাকে হারিয়ে প্লে-অফের আরও কাছে ঢাকা

রংপুরের বিপক্ষে প্রতিশোধ নিল রাজশাহী

রংপুরের বিপক্ষে প্রতিশোধ নিল রাজশাহী

সুপার ওভারে কপাল পুড়লো সিলেটের

সুপার ওভারে কপাল পুড়লো সিলেটের