জিম্বাবুয়ের টেস্ট থেকে দূরে থাকা উচিত

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩৮ পিএম, ২৯ ডিসেম্বর ২০১৭
জিম্বাবুয়ের টেস্ট থেকে দূরে থাকা উচিত

টেস্ট ইতিহাসের প্রথম চার দিনের দিবা-রাত্রির ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ইনিংস ও ১২০ রানের বড় ব্যবধানে হারের স্বাদ পেয়েছে সফরকারী জিম্বাবুয়ে। চারদিনের ম্যাচটি দ্বিতীয় দিনের ডিনারের আগেই শেষ হয়ে যায়। পুরো ম্যাচেই ব্যাট-বল হাতে ব্যর্থ জিম্বাবুয়ের টেস্ট ক্রিকেট থেকে দূূরে থাকা উচিত বলে মনে করেন দেশটির কোচ হিথ স্ট্রিক।

তিনি বলেন, ‘জিম্বাবুয়ের অনেক বেশি ওয়ানডে ক্রিকেট নিয়ে ব্যস্ত থাকা উচিত অথবা নিচের সারির দলগুলোর সাথে টেস্ট ক্রিকেট খেলা উচিত। বড় দলগুলোর সাথে টেস্ট খেলা থেকে দূরে থাকা উচিত।’

নিজেদের মাঠে জিম্বাবুয়ের সাথে একমাত্র টেস্টে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্বান্ত নেয় স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। ওপেনার আইডেন মার্করামের ১২৫ রানের সুবাদে ৯ উইকেটে ৩০৯ রান তুলে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে প্রোটিয়ারা। মার্করাম ১২৫ রান করেন।

প্রথম দিনই নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে নেমে ৪ উইকেটে ৩০ রান করে জিম্বাবুয়ে। তবে দ্বিতীয় দিন নিজেদের ১৬ উইকেট হারায় সফরকারীরা। প্রথম ইনিংসে মাত্র ৬৮ রানে অলআউট হবার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ১২১ রানে গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। ফলে দ্বিতীয় দিনের ডিনারের আগেই বড় ব্যবধানেই ম্যাচ জিতে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা।

এমন হারের জন্য টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের ঘাটতির কথাই বললেন জিম্বাবুয়ের কোচ স্ট্রিক। তিনি বলেন, ‘টেস্ট ক্রিকেট খেলার মত সামর্থ্য আমাদের নেই। টেস্ট খেলার অনেক ঘাটতি রয়েছে আমাদের। টেস্ট ক্রিকেট খেলতে গেলে অনেক ক্ষেত্রে উন্নতির ব্যাপার রয়েছে। তাই টেস্ট ক্রিকেট থেকে আমাদের দূরেই থাকা উচিত। তবে ওয়ানডে ক্রিকেটে আমরা ভালো করতে পারব এবং প্রতি›দ্বন্দিতা করতে পারব।’

তারপরও যদি জিম্বাবুয়ে টেস্ট খেলতে চায়, তবে আয়ারল্যান্ড বা আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলা উচিত বলে জানান স্ট্রিক। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, টেস্ট ক্রিকেটে উন্নতির জন্য আমাদের নিচের সারির দলগুলোর সাথে অনেক বেশি ম্যাচ খেলতে হবে। এটি অনেকটা রেলিগেশন ধরনের হতে পারে। এখানে ভালো খেলে বড় ফরম্যাটের জন্য নিজেদের তৈরি করা যাবে।’

‘তবে অবশ্যই আমার উপরের সারির দলগুলোর বিপক্ষে খেলতে চাই। কিন্তু ঐ ম্যাচগুলো আমাদের দেশের মাটিতে হলে ভালো হবে। এতে আমাদের কন্ডিশনের সুবিধা ভোগ করতে পারবো এবং প্রতিপক্ষের সাথে লড়াই করতে সক্ষম হবো। যা আমরা পোর্ট এলিজাবেথে করতে পারিনি। নিজেদের কন্ডিশন ও পীচ থেকে সব সুবিধা নিয়েছে প্রোটিয়ারা। এমন কন্ডিশনে খেলাটা সত্যিকারর্থেই কঠিন।’


শেয়ার করুন :