অস্ট্রেলিয়াকে অলআউট করে স্বস্তিতে নেই ভারতও

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ১০:২০ পিএম, ২৬ ডিসেম্বর ২০২০
অস্ট্রেলিয়াকে অলআউট করে স্বস্তিতে নেই ভারতও

বক্সিং-ডে টেস্টের প্রথম দিনই স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়াকে অলআউট করে দিয়েছে ভারতের বোলাররা। ৭২ দশমিক ৩ ওভার ব্যাট করে ১৯৫ রানে অলআউট হয়েছে অসিরা। তবে দিন শেষে স্বস্তিতে নেই ভারতও। জবাবে দিন শেষে ১ উইকেটে ৩৬ রান করেছে ভারত। ৯ উইকেট হাতে নিয়ে এখনও ১৫৯ রানে পিছিয়ে টিম ইন্ডিয়া।

নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও পেসার মোহাম্মদ সামিকে ছাড়া ভারতের বিপক্ষে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে অস্ট্রেলিয়া। ভারতের দুই উদ্বোধনী পেসার জসপ্রিত বুমরাহ ও উমেশ যাদবকে শুরুতে খেলতে কিছুটা সমস্যাই হচ্ছিলো অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার জো বার্নস ও ম্যাথু ওয়েডের।

প্রথম ৪ ওভারে মাত্র ১ বাউন্ডারি মারতে পারেন তারা। পঞ্চম ওভারে বুমরাহর ডেলিভারিতে পরাস্ত হয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন বার্নস। ১০ বল খেলে রানের খাতা খুলতে পারেননি তিনি। দলীয় ১০ রানে প্রথম উইকেট পতনের পর ক্রিজে ওয়েডের সঙ্গী হন মার্নাস লাবুশেন। রানের চাকা ঘুড়িয়েছেন ওয়েড। সাবধানী ছিলেন লাবুশেন।

অস্ট্রেলিয়ার রানের চাকা ঘুড়ানো ওয়েডকে থামান ভারতের স্পিনার রবীচন্দ্রন অশ্বিন। অশ্বিনকে উইকেট ছেড়ে মারতে গিয়ে আকাশে বল তুলে দেন ওয়েড। মিড-অনে সেই ক্যাচ নেন আরেক স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা। ৩৯ বলে ৬টি চারে ৩০ রান করেন ওয়েড।

ওয়েডের বিদায়ে উইকেটে আসেন প্রথম টেস্টে ব্যর্থ দলের সেরা ভরসা স্টিভেন স্মিথ। স্মিথকে দ্রুত ফেরাতে পারলেই অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে অর্ধেক যে শেষ, তা জানতো ভারত। তাই স্মিথের বিপক্ষে বুদ্ধিদীপ্ত ফিল্ডিং স্পিনার অশ্বিনের। স্মিথ উইকেটে আসার পরই লেগ গালিতে ফিল্ডার রাখেন অশ্বিন।

মিডল-স্টাম্প বরাবর বলকে রেখে তাকে লেগ সাইডে খেলানো চেষ্টা করছিলেন অশ্বিন। আর সেই ফাঁদে পা দেন স্মিথ। গ্ল্যান্স করতে গিয়ে লেগ গালিতে চেতেশ্বর পূজারাকে ক্যাচ দেন স্মিথ। ৮ বল খেলে রানের খাতা খুলতেই পারেননি তিনি। ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো প্রথম ইনিংসে খালি হাতে ফিরলেন তিনি। আর ৫১ ইনিংস পর শূন্যের দেখা পেলেন স্মিথ।

স্মিথের বিদায়ে ৩ উইকেট ৩৮ রানে পরিণত হয় অস্ট্রেলিয়া। এ অবস্থা থেকে লড়াইয়ে ফেরান লাবুশেন ও ট্রাভিস হেড। ভারতের বোলারদের বিপক্ষে রুখে দাঁড়ান তারা। এতে শতরান পেরিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। উইকেটে জমেও যাচ্ছিলেন লাবুশেন ও হেড। ৮৬ রানের জুটিও গড়েন তারা। আরও ভয়ঙ্কর হওয়ার আগে জুটিতে ভাঙন ধরান বুমরাহ। ৯২ বলে ৪টি চারে ৩৮ রান করা হেডকে শিকার করেন বুমরাহ।

বুমরাহ আঘাতে ব্রেক-থ্রু পায় ভারত। এ সুযোগে আবারও অস্ট্রেলিয়া শিবিরে আঘাত হানেন অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা মোহাম্মদ সিরাজ। নিজের অষ্টম ওভারে লাবুশেনকে বিদায় করেন সিরাজ। ১৩২ বলে ৪টির চারে ৪৮ রান করেন লাবুশেন।

১৩৪ রানে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে লাবুশেনের বিদায়ে মহাচাপে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। এ অবস্থায় অস্ট্রেলিয়াকে দ্রুত গুটিয়ে দেওয়ার স্বপ্ন দেখে ভারত। আর স্বীকৃত শেষ দুই ব্যাটসম্যান অধিনায়ক টিম পাইন ও ক্যামেরন গ্রিন ঘুড়ে দাঁড়ানোর চিন্তায় ছিলেন। কিন্তু তাদের চিন্তায় ছেদ ফেলেন সিরাজ ও অশ্বিন।

গ্রিনকে ১২ রানে সিরাজ ও পাইনকে ১৩ রানে থামান অশ্বিন। পরপর দু’ওভারে দু’টি উইকেট তুলে নেন সিরাজ ও অশ্বিন। ফলে ১৫৫ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে বেকাদায় পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। এ অবস্থা থেকে টেল-এন্ডাররা কিছু রান যোগ করতে সমর্থ হন। স্পিনার নাথান লিঁওর ১৭ বলে ২০ রানের কল্যাণে ১৯৫ রানের সংগ্রহ পায় অস্ট্রেলিয়া। শেষদিকে বুমরাহ ২টি ও জাদেজা ১টি উইকেট নেন। ইনিংসে বুমরাহ ৫৬ রানে ৪টি, অশ্বিনর ৩৫ রানে ৩টি ও সিরাজ ৪০ রানে ২টি উইকেট নেন।

শেষ সেশনে নিজেদের ইনিংস শুরু করে প্রথম ওভারের শেষ বলে ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়ালকে হারায় ভারত। অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্কের বলে লেগ বিফোর হন আগারওয়াল।

আগারওয়াল শূন্য হাতে ফিরলেও দিন শেষে অবিচ্ছিন্ন থাকেন আরেক ওপেনার শুভমান গিল ও পূজারা। অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা গিল ৩৮ বলে ৫টি চারে অপরাজিত ২৮ রান করেছেন। ১টি চারে অপরাজিত ৭ রান করেছেন পূজারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস : ১৯৫/১০, ৭২.৩ ওভার (লাবুশেন ৪৮, হেড ৩৮, বুমরাহ ৪/৫৬)
ভারত প্রথম ইনিংস : ৩৬/১, ১১ ওভার (গিল ২৮*, পূজারা ৭*, স্টার্ক ১/১৪)।

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

বুমরাহ-অশ্বিনের বোলিং তোপে অস্ট্রেলিয়া ১৯৫/১০

বুমরাহ-অশ্বিনের বোলিং তোপে অস্ট্রেলিয়া ১৯৫/১০

কিংবদন্তি জোন্সকে অভিনব উপায়ে শ্রদ্ধা

কিংবদন্তি জোন্সকে অভিনব উপায়ে শ্রদ্ধা

বুমরাহ-অশ্বিনদের পারফরমেন্সে খুশি কোহলি

বুমরাহ-অশ্বিনদের পারফরমেন্সে খুশি কোহলি

লজ্জার রেকর্ডে স্তম্ভিত কোহলি

লজ্জার রেকর্ডে স্তম্ভিত কোহলি