হারের ব্যবধান আর কমাতে পারেনি শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ১১:২২ এএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২১
হারের ব্যবধান আর কমাতে পারেনি শ্রীলঙ্কা

স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গল টেস্ট জিততে শেষ দিনে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল মাত্র ৩৬ রান। হাতে ছিল ৭টি উইকেট। নিশ্চিত হারের ম্যাচে শেষ দিনে আর কোন ব্যবধান কমাতে পারেনি স্বাগতিকরা।

সোমবার (১৮ জানুয়ারি) সাতসকালেই কাঙ্ক্ষিত রান তুলে নিয়েছে দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো ও ড্যান লরেন্স। ফলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৭ উইকেটে জয় পায় ইংল্যান্ড। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচ জয়ে সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল সফরকারীরা।

চতুর্থ দিনের শেষ দিকে জয়ের জন্য দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৭৪ রানের টার্গেট পায় ইংল্যান্ড। তবে স্বল্প রানের টার্গেটে খেলতে নেমে দ্রুত প্যাভিলিয়নে ফিরেন ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জ্যাক ক্রলি-ডম সিবলি এবং অধিনায়ক জো রুট। ক্রলি ৮ ও সিবলি ২ রান করে বাঁ-হাতি স্পিনার এম্বুলদেনিয়ার শিকার হন।

প্রথম ইনিংসে ২২৮ রান করা রুট রান আউটে কাটা পড়ার আগে নামের পাশে যোগ করেন মাত্র ১ রান। চতুর্থ দিন শেষে জনি বেয়ারস্টো ১১ ও ড্যান লরেন্স ৭ রানে অপরাজিত ছিলেন। পঞ্চম দিন আর কোন উইকেট হারানে হয়নি ইংল্যান্ডের। আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যানও দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। বেয়ারস্টো ৬৫ বলে ৩৫ এবং ৫২ বলে ২১ রান করেন।

এর আগে ওপেনার লাহিরু থিরিমান্নের সেঞ্চুরিতে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৫৯ রানে শ্রীলঙ্কা অলআউট হলে জয়ের জন্য মাত্র ৭৪ রানের টার্গেট পায় সফরকারী ইংলিশরা।

প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কাকে ১৩৫ রানে অলআউট করে ৪২১ রানে থামে ইংল্যান্ড। ফলে প্রথম ইনিংসেই ২৮৬ রানে পিছিয়ে পড়ে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় ইনিংসে তৃতীয় দিন শেষে ২ উইকেটে ১৫৬ রান করে শ্রীলঙ্কা। থিরিমান্নে ৭৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। তার সাথে খালি হাতে ছিলেন এম্বুলদেনিয়া।

রোববার (১৭ জানুয়ারি) চতুর্থ দিন এম্বুলদেনিয়া খালি হাতে ফিরলে চতুর্থ উইকেটে জুটি বাঁধেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ও থিরিমান্নে। ১১৬ বলে ৫২ রান যোগ করেন তারা। এ জুটিতেই টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন থিরিমান্নে। ব্যক্তিগত ১১১ রানে ইংল্যান্ড পেসার স্যাম কারানের শিকার হয়ে থামেন থিরিমান্নে। তার ২৫১ বলের ইনিংসে ১২টি চার ছিল।

টেস্ট ক্যারিয়ারের ৩৬তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ পাওয়া ম্যাথুজ তিন অংকের দিকেই এগোচ্ছিলেন। তবে ম্যাথুজকে ৭১ রানে থামিয়ে দেন বাঁ-হাতি স্পিনার জ্যাক লিচ। তার ২১৯ বলের ইনিংসে ৪টি চার ছিল। ম্যাথুজের পর শ্রীলঙ্কার আর কোন ব্যাটসম্যান বড় ইনিংস খেলতে পারেননি।

লিচের স্পিন বিষে ৩৫৯ রানে গুটিয়ে যায় প্রথম ইনিংসে ১৩৫ রান করা শ্রীলঙ্কা। ইংল্যান্ডের লিচ ১২২ রানে ৫টি উইকেট নেন। ১১ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নেন লিচ।

ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছে প্রথম ইনিংসে ২২৮ রানের ইনিংস খেলা ইংল্যান্ডের দলনেতা জো রুট।

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

ডাবল-সেঞ্চুরি করে রেকর্ড বইয়ে রুট

ডাবল-সেঞ্চুরি করে রেকর্ড বইয়ে রুট

প্রথমবার পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে ইংল্যান্ডের মেয়েরা

প্রথমবার পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে ইংল্যান্ডের মেয়েরা

যুক্তরাষ্ট্রে বসতি গড়তে লঙ্কান ক্রিকেটকে জয়সুরিয়ার বিদায়

যুক্তরাষ্ট্রে বসতি গড়তে লঙ্কান ক্রিকেটকে জয়সুরিয়ার বিদায়

দ্বিতীয় ম্যাচেও শ্রীলঙ্কার বড় পরাজয়, সিরিজ জিতলো প্রোটিয়ারা

দ্বিতীয় ম্যাচেও শ্রীলঙ্কার বড় পরাজয়, সিরিজ জিতলো প্রোটিয়ারা