জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের হ্যাটট্রিক টেস্ট জয়

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৬:২৯ পিএম, ১১ জুলাই ২০২১
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের হ্যাটট্রিক টেস্ট জয়

দীর্ঘ আট বছর পর জিম্বাবুয়ে সফর, তবে জয়ের ধারা ধরে রাখলো বাংলাদেশ। হারারে সফরের একমাত্র টেস্টে ২২০ রানের জয় তুলে নিয়েছেন মমিনুল হকরা। দেশটির বিপক্ষে বাংলাদেশের এটি টানা তৃতীয় এবং জিম্বাবুয়ের মাটিতে টানা দ্বিতীয় জয়।

২০১৩ সালে এই হারারেতেই মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্বে বাংলাদেশ দল জিম্বাবুয়েকে ১৪৩ রানে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর মিরপুরে ঘরের মাঠে ২০১৮ এবং ২০২২ সালে জয় পায় বাংলাদেশ। ২০১৮ সালে ২১৮ রানে এবং ২০২০ সালে ইনিংস এবং ১০৬ রানে ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছেল বাংলাদেশ। দুটি ম্যাচেই নেতৃত্বে ছিলেন মুশফিকুর রহিম। 

বাংলাদেশের বিপক্ষে হারারে টেস্ট ম্যাচ জিতলে হলে বিশ্বরেকর্ড গড়তে হতো জিম্বাবুয়েকে। পঞ্চম ও শেষ দিনে জিম্বাবুয়েকে করতে হত ৩৩৭ রান, যেখানে তাদের হাতে ছিল ৭টি উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে জয়ের জন্য জিম্বাবুয়ের সামনে ৪৭৭ লক্ষ্য দিয়ে ইনিংস ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ।

হার প্রায় নিশ্চিত থাকলেও শেষ দিনে জিম্বাবুয়ের লড়াই ছিল ড্রয়ের দিকে। তবে লাঞ্চ বিরতির আগেই বড় ব্যবধানের হার নিশ্চিত হয়ে যায়। তাসকিন-মিরাজদের তোপে ১৭৬ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে যায় জিম্বাবুয়ে। শেষ পর্যন্ত ২৫৬ রানে অলআউট হয় তারা।

দেশের বাইরে বাংলাদেশের এটাই সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়। এর আগে ১৪৩ রানের জয়টিও এই  জিম্বাবুয়েও বিপক্ষেই ছিল, ২০১৩ সালে।

হারারে টেস্টের শেষ দিনের শুরুটা অবশ্য বেশ হতাশায় কেটেছে বাংলাদেশের। একটি নয়, তিন তিনবার হাতছাড়া হওয়া ক্যাচে প্রথম ঘণ্টায় কেটেছে উইকেট বিহীন। তবে সময় বয়ে যাওয়ার সাথে সাথে টাইগার বোলারদের কাছে আত্মসমর্পণ করেন জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা।

১৬৪ রানে ৭ উইকেট হারানোর পরও ড্রয়ের জন্য চেষ্টা চালিয়ে গেছেন স্বাগতিকরা। শেষ তিন উইকেট শিকার করতে বাংলাদেশের বল করতে হয়েছে ৩৪ দশমিক ৩ ওভার। জিম্বাবুয়ের পক্ষে ব্যাট হাতে এ লড়াকু মানসিকতার নেতৃত্ব দিয়েছেন ডোনাল্ড তিরিপানো।

তবে শেষ পর্যন্ত তাকে থামিয়ে দেন এবাদত হোসেন। ১৪৪ বলে ৬টি বাউন্ডারিতে ৫২ রান করে তিরিপানো।এরপর আর বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়নি বাংলাদেশের। রিচার্ড এনগারাভাকে (১০) মেহেদী হাসান বোল্ড করলে অন্যপ্রান্তে ৩০ রানে অপরাজিত থাকনে ব্লেসিং মুজারবানি।

বল হাতে তাসকিন এবং মেহেদী হাসান মিরাজ ৪টি করে উইকেট শিকার করেন। এছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান এবং ইবাদাত হোসেন। ম্যাচ সেরা হয়েছে প্রথম ইনিংসে অপরাজিত ১৫০ রান করে খাদের কিনারায় বাংলাদেশকে শক্ত ভিত গড়ে দেওয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

প্রথম ইনিংস
বাংলাদেশ : ৪৬৮/১০ (মাহমুদউল্লাহ ১৫০*, লিটন দাস ৯৫, তাসকিন আহমেদ ৭৫, মুমিনুল হক ৭০, সাদমান ইসলাম ২৩; ব্লেসিং মুজারবানি ৪/৯৪)

জিম্বাবুয়ে: ২৭৬/১০ (তাকুজওয়ানাশে কাইতানো ৮৭, ব্রেন্ডন টেলর ৮১, রেগিস চাকাভা ৩১*; মেহেদি হাসান মিরাজ ৫/৮২, সাকিব আল হাসান ৪/৮২)

দ্বিতীয় ইনিংস
বাংলাদেশ : ২৮৪/১ ডিক্লে. (সাদমান ইসলাম ১১৫*, নাজমুল হোসেন শান্ত ১১৭*, সাইফ হাসান ৪৩)

জিম্বাবুয়ে : ২৫৬/১০ (ব্রেন্ডন টেলর ৯২, ডোনাল্ড তিরিপানো ৫২; মেহেদি মিরাজ ৪/৬৬, তাসকিন আহমেদ ৪/৮২)

ফল : বাংলাদেশ ২২০ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (বাংলাদেশ)।

স্পোর্টসমেইল২৪/আরএস 

[sportsmail24.com এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও। খেলাধুলার ভিডিও-ছবি এবং  সর্বশেষ সংবাদ পড়তে ব্রাউজ করুন যেকোন ঠিকানায়। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে ইনস্ট্রল করে নিতে আমাদের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে ‘গার্ড অব অনার’

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে ‘গার্ড অব অনার’

অতীত নিয়ে ভাবেন না শান্ত

অতীত নিয়ে ভাবেন না শান্ত

নিজেকে প্রমাণের চ্যালেঞ্জ ছিল, আলহামদুলিল্লাহ : মাহমুদউল্লাহ

নিজেকে প্রমাণের চ্যালেঞ্জ ছিল, আলহামদুলিল্লাহ : মাহমুদউল্লাহ

তাসকিন-মুজারাবানিকে আইসিসির শাস্তি

তাসকিন-মুজারাবানিকে আইসিসির শাস্তি