শান্তর সেঞ্চুরি মাশরাফির দুর্দান্ত হ্যাট্টিকে জয় আবাহনীর

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৩৩ এএম, ০৭ মার্চ ২০১৮
শান্তর সেঞ্চুরি মাশরাফির দুর্দান্ত হ্যাট্টিকে জয় আবাহনীর

প্রথমে নাজমুল হোসেন শান্তর সেঞ্চুরির পর দেশ সেরা পেসার মাশরাফি বিন মর্তুজার হ্যাট্টিকে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে জয়ের ধারায় ফিরল আবাহনী লিমিটেড।

মঙ্গলবার অষ্টম রাউন্ডের ম্যাচে আবাহনী ১১ রানে হারিয়েছে অগ্রণী ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে। শান্ত অপরাজিত ১৩৩ রান করেন। আর বল হাতে পরপর চার বলে চার উইকেট নিয়ে নিজের শিকার সংখ্যা ৬এ নিয়ে যান মাশরাফি। ফলে এবারের মৌসুমে ৮ ম্যাচে ২৫ উইকেট নিয়ে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ম্যাশ।

ফতুল্লায় খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় আবাহনী। দুই ওপেনার এনামুল হক ২৩ ও সাইফ হাসান ২৪ রান করে ফিরে গেলেও তিন নম্বরে বড় ইনিংস খেলেছেন শান্ত। মিডল-অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান অধিনায়ক নাসির হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন ও উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ মিথুন অপরপ্রান্ত দিয়ে সঙ্গ দিয়েছেন শান্তকে।

নাসির ২৫, মোসাদ্দেক ১৯ ও মিথুন ৪৬ রান করে ফিরলেও এক প্রান্ত আগলে ইনিংসের শেষ পর্যন্ত ব্যাট করেন শান্ত। শেষ পর্যন্ত সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়ে ১৩৩ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। তার ১২৩ বলের ইনিংসে ১১টি চার ও ৩টি ছক্কা ছিল।

জয়ের জন্য ২৯১ রানের লক্ষ্যে শুরুটা ভালোই করে অগ্রণী ব্যাংক। ৫১ রানের শুরুর পর ৬১ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। তবে তৃতীয় উইকেটে পাকিস্তানের রাজা আলী দারের সাথে ১৪৬ রানের জুটি গড়ে দলকে লড়াইয়ে রাখেন ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস। রাজা ৬২ রানে থেমে গেলে, সেঞ্চুরি তুলে নেন আগের ম্যাচে কলাবাগান ক্রিড়া চক্রের বিপক্ষে ৯৯ রান করা নাফীস।

শেষ পর্যন্ত ব্যক্তিগত ১২১ রানে মাশরাফির প্রথম শিকার হন নাফীস। তার ১১৯ বলের ইনিংসে ১৩টি চার ও ৩টি ছক্কা ছিল।

নাফীস ফিরে যাবার পর উইকেটরক্ষক ধীমান ঘোষের ব্যাটে চড়ে জয়ের আশা জাগিয়ে রেখেছিল অগ্রনী ব্যাংক। শেষ ওভারে জয়ের জন্য তাদের প্রয়োজন পড়ে ১৩ রান। হাতে ছিল ৪ উইকেট। ম্যাচের শেষ ওভারটি করতে আসেন আবাহনীর মাশরাফি। প্রথম বল থেকে ১ রান দেন ম্যাশ।

এরপরই ম্যাজিক দেখান বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি। দ্বিতীয় থেকে পঞ্চম বল পর্যন্ত টানা চার ডেলিভারীতে ধীমান, অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাক, শফিউল ইসলাম ও ফজলে রাব্বিকে শিকার করেন ম্যাশ। ফলে হ্যাট্টিক পূর্ণ করেন মাশরাফি। এতে ২৭৯ রানেই গুটিয়ে যায় অগ্রনী ব্যাংক।

৯ দশমিক ৫ ওভার বল করে ৪৪ রানে ৬ উইকেট নেন মাশরাফি। এবারের লিগে দ্বিতীয়বারের মত পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নিলেন ম্যাশ। তবে ম্যাচের সেরা হয়েছেন আবাহনীর শান্ত।

আগের ম্যাচে প্রাইম ব্যাংকের কাছে ৯ রানে হেরে এবারের লিগে প্রথম হারের স্বাদ নিয়েছিল আবাহনী। এই জয়ে ৮ খেলায় ৭ জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে থাকলো আবাহনী। সমানসংখ্যক ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে অগ্রনী ব্যাংক।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

চার বলে চার উইকেট নিয়ে মাশরাফির রেকর্ড

চার বলে চার উইকেট নিয়ে মাশরাফির রেকর্ড

ম্যাককালামের ভাই মোস্তাফিজ

ম্যাককালামের ভাই মোস্তাফিজ

ব্যাংককের পর অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন সাকিব

ব্যাংককের পর অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন সাকিব

কোহলি-ইমরানের মানসিকতাই এক

কোহলি-ইমরানের মানসিকতাই এক