রকিবুলের সেঞ্চুরিতে আশা বেঁচে থাকলো মোহামেডানের

স্পোর্টসমেইল২৪ ডেস্ক স্পোর্টসমেইল২৪ ডেস্ক প্রকাশিত: ০৭:৩১ পিএম, ০৮ এপ্রিল ২০১৯
রকিবুলের সেঞ্চুরিতে আশা বেঁচে থাকলো মোহামেডানের

ফাইল ছবি

ইনফর্ম রকিবুল হাসানের সেঞ্চুরিতে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে সুপার সিক্সে খেলার আশা বেঁচে থাকলো মোহামেডান স্পোটিং ক্লাবের। আজ দশম রাউন্ডের ম্যাচে মোহামেডান বৃষ্টি আইনে ১৩৩ রানের বড় ব্যবধানে হারায় প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে।

এই জয়ে ১০ খেলায় ৫ জয় ও ৫ হারে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চম স্থানে উঠলো মোহামেডান। আগামী ১১ এপ্রিলে লিগ পর্বের শেষ রাউন্ডে বাংলাদেশ ক্রিড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে (বিকেএসপি) হারালেই সুপার সিক্স নিশ্চিত হবে মোহামেডানের। আগেই সুপার সিক্স নিশ্চিত করা প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ১০ ম্যাচে ৭ জয় ৩ হারে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয়স্থানে রয়েছে।

সাভারের বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে টস জিতে প্রথমে বোলিং বেছে নেয় প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। ব্যাট হাতে ভালো শুরু করতে ব্যর্থ হয় মোহামেডান। ইনিংসে তৃতীয় বল ও দলীয় ১ রানে প্রথম উইকেট হারায় মোহামেডান। এরপর প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দিয়ে উঠার চেষ্টা করেন আরেক ওপেনার লিটন দাস ও তিন নম্বরে নামা অভিষেক মিত্র। ৪৪ রানের জুটি গড়েন তারা। তবে দলীয় ৬৩ রানের মধ্যে বিদায় নেন দু’জনে। লিটন ৩৫ বলে ৩৬ ও মিত্র ৩৫ বলে ২০ রান করেন।

লিটন-মিত্রকে হারানোর ধাক্কা সইতে না সইতে দ্রুত আরও ২ উইকেট হারিয়ে মহাবিপদে পড়ে মোহামেডান। মোহাম্মদ আশরাফুল ৪ ও অধিনায়ক নাদিফ চৌধুরি ১১ রান করে ফিরেন। ফলে ৮৮ রানে ৫ উইকেট হারায় মোহামেডান।

এ অবস্থায় দলকে খেলায় ফেরানোর চেষ্টা করেন ইনফর্ম রকিবুল ও ভারতীয় অলরাউন্ডার রজত ভাটিয়া। প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের বোলারদের সর্তকতার সাথে মোকাবেলা করে পরিস্থিতির সাথে দ্রুত মানিয়ে নিয়ে বড় জুটি গড়েন রকিবুল ও ভাটিয়া। তাদের ব্যাটিং দৃঢ়তায় ২শ রানের কোটাও অতিক্রম করে ফেলে মোহামেডান। দু’জনই হাফ-সেঞ্চুরি তুলে দলের সংগ্রহ বড় করছিলেন।

অবশেষে দলীয় ২৩৪ রানে ভেঙ্গে যায় রকিবুল-ভাটিয়া জুটি। জাতীয় দলের অভিজ্ঞ বাঁ-হাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক ভাঙ্গেন এই জুটি। রকিবুল-ভাটিয়া ১৪৬ রানের জুটি গড়েন। এরমধ্যে ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৬০ বলে ৬৬ রান করে আউট হন ভাটিয়া।

তার বিদায়ে উইকেটে গিয়েই মারমুখী মেজাজে ব্যাট করেন সোহাগ গাজী। রকিবুলের সাথে জুটি বেঁধে চার-ছক্কায় দলের স্কোর দ্রুতই বাড়াতে থাকেন সোহাগ। শেষ পর্যন্ত ৪৮তম ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হন সোহাগ। ১৪ বল মোকাবেলায় দুই বাউন্ডারি ও তিন ওভার বাউন্ডারিতে ৩৩ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলে থামেন সোহাগ।

সোহাগের আউটের আগের বলেই এবারের লিগে প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ নেন রকিবুল। আগের ৯ ম্যাচে পাঁচটি হাফ-সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ১১টি চার ও ১টি ছক্কায় ১০৪ বলে ১০২ রান করেন রকিবুল। এতে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৯৬ রানের সংগ্রহ পায় মোহামেডান। এবারের চলমান লিগে এ পর্যন্ত ৫১০ রান নিয়ে সর্বোচ্চ সংগ্রহকারীদের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন রকিবুল। ৯ ম্যাচে ২টি করে সেঞ্চুরি ও হাফ-সেঞ্চুরিতে ৫২২ রান নিয়ে সবার উপরে আবাহনীর জহিরুল ইসলাম।

জয়ের জন্য ২৯৭ রানের টার্গেটে ভালো শুরু করেন প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের দুই ওপেনার অধিনায়ক এনামুল হক ও নাজমুল হোসেন মিলন। ৬৩ বলে ৪৮ রানের জুটি গড়েন। কিন্তু ১ রানের ব্যবধানে ফিরে যান দু’জনই। এনামুল ২৬ ও মিলন ১৯ রান করে আউট হন। দু’জনকেই শিকার করেন মোহামেডানের স্পিনার সোহাগ।

৪৯ রানের মধ্যে দুই ওপেনারের বিদায়ের পর প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের পরবর্তী ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরেন মোহামেডানের বোলাররা। এতে যাওয়া-আসার মিছিল শুরু করে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের ব্যাটসম্যানরা।

সোহাগ-আশরাফুলের ঘুর্ণিতে পড়ে ৩৯ দশমিক ১ ওভার শেষে ৯ উইকেটে ১৫০ রান করে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। এরপরই বৃষ্টি ও খারাপ আবহাওয়ার কারনে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। পরবর্তীতে বৃষ্টি আইনে নির্ধারিত হয় ম্যাচের ফল। বৃষ্টিতে খেলার বন্ধ হবার আগে জয়ের জন্য ৩৯ দশমিক ১ ওভার শেষে ২৮৪ রান থাকা প্রয়োজন ছিলো প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের।

কিন্তু সেটি না থাকায় বড় ব্যবধানে ম্যাচ হারে তারা। মোহামেডানের সোহাগ ৪টি ও আশরাফুল ৩টি উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন মোহামেডানের রকিবুল।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

সড়ক দুর্ঘটনায় নারী ক্রিকেটার নিহত

সড়ক দুর্ঘটনায় নারী ক্রিকেটার নিহত

বিশ্বকাপের জন্য নিজেকে উজাড় করে দিতে প্রস্তুত তাসকিন

বিশ্বকাপের জন্য নিজেকে উজাড় করে দিতে প্রস্তুত তাসকিন

বিশ্বকাপে ভারতকে হারাতে চান সরফরাজ

বিশ্বকাপে ভারতকে হারাতে চান সরফরাজ

ভারতের বিশ্বকাপ দল ঘোষণা ১৫ এপ্রিল

ভারতের বিশ্বকাপ দল ঘোষণা ১৫ এপ্রিল