প্রথম ইনিংসে খারাপ ব্যাটিং পিছিয়ে পড়ার কারণ : মাহমুদউল্লাহ

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪৮ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
প্রথম ইনিংসে খারাপ ব্যাটিং পিছিয়ে পড়ার কারণ : মাহমুদউল্লাহ

ঢাকা টেস্টে সফরকারী শ্রীলঙ্কার কাছে ২১৫ রানের ব্যবধানে হারলো স্বাগতিক বাংলাদেশ। এমন হারের পেছনে প্রথম ইনিংসকে দুষলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আড়াই দিনে ঢাকা টেস্ট শেষ হবার পর সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘প্রথম ইনিংসে আমাদের ভালো করা উচিত ছিল। আমার মনে হয় এখানেই আমরা পিছিয়ে পড়েছি।’

চট্টগ্রাম টেস্টে ড্র’র পর সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে আত্মবিশ্বাসী হয়েই খেলতে নামে বাংলাদেশ। সেই প্রতিফলন ছিলো ঢাকা টেস্টে। এ ম্যাচের প্রথম ইনিংসে বোলারদের হাত ধরে শ্রীলংকাকে ২২২ রানেই গুটিয়ে দেয় টাইগাররা। কিন্তু নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে পুরোই ব্যর্থ হয় তারা। মাত্র ১১০ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। ৩ রানে ইনিংসের শেষ ৫ উইকেট হারায় টাইগাররা।

এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলঙ্কাকে ২২৬ রানে আটকে দিয়ে ম্যাচ জয়ের জন্য ৩৩৯ রানের টার্গেট পায় বাংলাদেশ। বড় টার্গেটের জবাব দিতে ব্যর্থ বাংলাদেশ। এবার ১২৩ রানে গুটিয়ে ম্যাচ হারের লজ্জা পায় টাইগাররা। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৩ রানে শেষ ৬ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

দু’ইনিংসেই এমন ব্যাটিং ধসে খুবই হতাশ বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। তিনি বলেন, ‘এভাবে ব্যাটিং ধসের জবাব দেয়া আসলে কঠিন। কারণ, অবশ্যই খুব হতাশাজনক। আমার মনে হয় যে, এ ধরনের উইকেটে হয়তো বা আমরা জানতাম টার্গেট চেজ করব। আর মোটামুটি আমাদের সবারই ধারণা ছিল যে এই টেস্টে আমরা রেজাল্ট দেখব। যেখানে আমরা জানি, স্পিন সহায়ক উইকেট। প্রথম ইনিংসেই আমাদের ভালো করা উচিত ছিল। আমার মনে হয় এখানে আমরা পিছিয়ে গেছি। প্রথম ইনিংসে যদি আমরা ২শ’ বা তার বেশি করতে পারতাম তাহলে হয়তো আমাদের আরেকটু ভালো সুযোগ ছিল। কারণ এই উইকেটে ৩৪০, চেজ করা কিছুটা অবশ্যই অতিরিক্ত চাপ ছিলো।’

চট্টগ্রাম টেস্টের দু’ইনিংসে ৫১৩ ও ৫ উইকেটে ৩০৭ রান করতে পারে বাংলাদেশ। তাই ঢাকা টেস্টে ব্যাটসম্যানদের কাছ থেকে ভালো পারফরমেন্স অব্যাহত থাকবে বলে আশা করেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা ভালো করতে না পারায় হতাশ তিনি, ‘ক্রিকেট খেলা তো একটা বাজির মতো। আমরা জানতাম যে ওদের স্পিন ডিপার্টমেন্টটা খুব ভালো। আর আমাদের স্পিন ডিপার্টমেন্টও ভালো করেছিল। জানতাম আমাদের ব্যাটসম্যানদের জন্যও চ্যালেঞ্জিং হবে। কিন্তু আমরা আমাদের ব্যাটসম্যানদের উপর ভরসা রেখেছিলাম। কিন্তু দূর্ভাগ্যবশত, ব্যাটসম্যানরা ভালো পারফর্ম করতে পারেনি।’

আঙ্গুলের ইনজুরির কারণে দুই টেস্টে দলের নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান খেলতে পারেননি। তাই দু’ম্যাচেই সাকিবকে মিস করেছেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় ওর ব্যাটিং বা বোলিং মিস করেছি। আমরা সবাই জানি তার সামর্থ্য। বিশেষ করে তার বোলিং এই উইকেটে আরও ভয়ঙ্কর হতো। কারণ ওর নিয়ন্ত্রণ আরও ভালো। প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের ভালোভাবে বুঝতে পারে। খুব তাড়াতাড়ি ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝতে পারে সে। আর সবাই জানি, ও একজন বিশ্বমানের ব্যাটসম্যান। সেদিক দিয়ে ওকে অনেক মিস করেছি।’


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

দেড় দিন আগেই হেরে নিলো বাংলাদেশ

দেড় দিন আগেই হেরে নিলো বাংলাদেশ

১১০ রানেই ‘প্যাকেট’ বাংলাদেশ

১১০ রানেই ‘প্যাকেট’ বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টি খেলবে পাঁচ নতুন মুখ

টি-টোয়েন্টি খেলবে পাঁচ নতুন মুখ

বিরাট-মন্দনার জার্সি নম্বর ১৮

বিরাট-মন্দনার জার্সি নম্বর ১৮