প্রথমবারের মত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

স্পোর্টসমেইল২৪ ডেস্ক স্পোর্টসমেইল২৪ ডেস্ক প্রকাশিত: ১২:৪৩ এএম, ১৮ মে ২০১৯
প্রথমবারের মত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

ছবি : এএফপি

দুর্দান্ত বাংলাদেশ, দুর্দান্ত সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ২৪ ওভারে ২১০ রানের টার্গেটেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের টানা তৃতীয় ম্যাচে হারিয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নের স্বাদ গ্রহণ করলো বাংলাদেশ।

ত্রিদেশীয় সিরিজে বৃষ্টির বাধায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়ে ৫৮ রানের বেশি টার্গেট নিয়েও সৌম্য-সৈকতের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ৫ উইকেটের জয় তুলে নিয়ে বাংলাদেশ। এ জয়ে নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ত্রিদেশীয় সিরিজের চ্যাম্পিয়ন হলো টাইগাররা।

শুক্রবার (১৭ মে) আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন মাশরাফি। ফলে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনার বাংলাদেশি বোলারদের ভালোই শাসন করতে থাকেন।

দুই ওপেনার অপরাজিত থেকে ২০.১ ওভারে তুলে নেন ১৫২ রান। তবে এর পর বৃষ্টির বাধায় খেলা বন্ধ হয়ে যায়। সংশয় দেখা দেয় মাঠে আর বল গড়ানোর। তবে টানা ৫ ঘণ্টার পর স্থায়ী সময় বিকেল সাড়ে ৫টা (বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১০টা) আবারও শুরু হয় খেলা।

আরও পড়ুন> আইসিসি’র পাঁচ চমকে মোসাদ্দেক

বৃষ্টির কারণে ম্যাচ আটকে থাকায় ম্যাচের পরিধি কমিয়ে আনা হয়। ম্যাচ আম্পায়াররা সিদ্ধান্ত দেন উভয় দল ২৪ ওভার করে ব্যাটিং করতে পারবে। সিদ্ধন্ত অনুযায়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ তাদের বাকি ৩.৫ ওভার ব্যাট করে ১ উইকেট হারিয়ে মোট ১৫২ রান সংগ্রহ করে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৪ ওভার ব্যাটিং করে ১৫২ রান সংগ্রহ করলেও ডাকলুইস পদ্ধতিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে আরও ৫৮ রান যোগ হয়। ফলে ২৪ ওভারে বাংলাদেশের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২১০ রান।

২৪ ওভারে ২১০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করে টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। তামিমের ব্যাটে তেমন রান না আসলেও ব্যাট চালাতে থাকেন সৌম্য।

আরও পড়ুন > যে কারণে বিশ্বকাপে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত

দলীয় ৫৯ রানের ১৩ বল মোকাবেলা করে ব্যক্তিগত ১৮ রানের তামিম ফিরে গেলেও সৌম্য তার রান তোলার গতি ধরে রাখেন। তামিমের পর দলীয় ৬০ রানে ব্যক্তিগত শূন্য রানে আউট হন সাব্বির রহমান। সাব্বির আউট হলে মুশফিকুর রহীমকে নিয়ে বাংলদেশের বারের চাকা সচল রাখেন সৌম্য।

সৌম্য সরকার ৪১ বল মোকাবেলা করে ৬৬ রানে সাজঘরে ফেরেন। তার এ ইনিংসের মধ্যে ৯টি চারের মারের সঙ্গে ৩টি ছক্কার মার ছিল। সৌম্যর পর ব্যক্তিগত ৩৬ রানের চলে যান মুশফিক। ১৩৪ রানের ৪ উইকেট হারিয়ে হারের শঙ্কায় পড়ে বাংলাদেশ।

তবে সেই শঙ্কা দূর করেন সৈকত। ব্যাট হাতে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সাথে জুটি গড়ে একের পর এক ছক্কা হাকিয়ে তাক লাগিয়ে দেন। মূলত সৌম্য সরকারের ব্যাটিং তাণ্ডবের পর তার ব্যাটিং ঝড়েই প্রখমবারের মতো শিরোপা জয়ের স্বাদ পেল বাংলাদেশ।

মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত তার পুরস্কারও পেয়েছেন। ফাইনাল ম্যাচে পেয়েছেন ম্যাচ সেরা পুরস্কার।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

মাশরাফিদের উৎসাহ দিতে প্রধানমন্ত্রীর ফোন

মাশরাফিদের উৎসাহ দিতে প্রধানমন্ত্রীর ফোন

বিশ্বকাপ মাতাবেন বাংলাদেশের আতহার আলী

বিশ্বকাপ মাতাবেন বাংলাদেশের আতহার আলী

মাশরাফির মন্ত্রেই রাহীর সাফল্য

মাশরাফির মন্ত্রেই রাহীর সাফল্য

বিশ্বকাপের আশা এখনও ছাড়েননি ইমরুল

বিশ্বকাপের আশা এখনও ছাড়েননি ইমরুল