ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার অস্ত্র পেস

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪০ এএম, ২৩ নভেম্বর ২০১৭
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার অস্ত্র পেস

ব্রিজবেনের গাব্বায় বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে টেস্ট ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরনো প্রতিদ্ন্দ্বিবতা অ্যাশেজ সিরিজ। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে কন্ডিশনের সঙ্গে অপরিচিত সফরকারী ইংল্যন্ডকে পেস আক্রমণ দিয়ে ঘায়েল করতে চাইবে স্টিভ স্মিথের নেতৃত্বাধীন নবরূপের অস্ট্রেলিয়া।

সিরিজের প্রথম দুই টেস্টের জন্য ঘোষিত অস্ট্রেলিয়া দল নিয়ে অনেকেই সমালোচনা করেছেন, বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। তবে দলে থাকা তিন পেসার মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজেলউড এবং প্যাট কামিন্সের বোলিং আক্রমণ দিয়েই ২০১৩ সালে গাব্বা মাঠে মিচেল জনসনের ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি আশা করছে অসিরা।

পক্ষান্তরে এখনো পরীক্ষা মেলেনি ইংল্যান্ড ব্যাটিং লাইনআপেরও। তার উপড় দলটির জন্য বড় ধাক্কা নাইট ক্লাবের বাইরে মারামারির ঘটনায় অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ হয়ে দল থেকে বাদ পড়া তারকা অলরাউন্ডার বেন স্টোকস।

উনিশ শতকে শুরু হওয়া দ্বিপাক্ষিক এ সিরিজ মানেই তুমুল উত্তেজনা। তার উপড় অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার আসন্ন সিরিজে ইংল্যান্ডকে ‘যুদ্ধ’ মোকাবেলা করতে হবে বলে আগেই হুমকি দিয়ে রেখেছন। কেবলমাত্র ওয়ার্নার নন দলের অনেক খেলোয়াড়ই চার বছর আগে সফরকারী দলকে জনসনের কৃর্তির কথা স্মরণ করিয়ে রেখেছেন।

চার বছর আগে জনসনের ৯ উইকেট শিকারের সুবাদে গাব্বা টেস্টে ৩৮১ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছিল অসিরা। শেষ পর্যন্ত ৫-০ ব্যবধানে হোয়াউটওয়াশ হতে হয়েছিল ইংলিশদের। স্টার্কের নেতৃত্বাধীন তিন পেসার এক টেস্টে কখনো এক সঙ্গে বোলিং করেননি। তবে তারপরও অস্ট্রেলিয়ার সর্বকালের সেরা পেস কম্বিনেশন হিসেবে স্বীকৃতি মিলেছে তাদের। অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে তাদের ক্যারিয়ারের স্ট্রাইক রেট অনেক ভালো।

তাছাড়া গাব্বায় অস্ট্রেলিয়ার রয়েছে সমৃদ্ধ ইতিহাস। এ মাঠে ১৯৮৮ সাল থেকে কো ম্যাচে হারেনি স্বাগতিকরা, গত ৩১ বছরে কোন ম্যাচে জয়ী হতে পারিনি ইংলিশরা।

অস্ট্রেলিয়ার সিরিজ জয়ের আশায় মুখ্য হয়ে উঠতে পারেন স্টার্ক এবং ইংল্যান্ডের বড় দুই ব্যাটসম্যান অধিনায়ক জো রুট ও সাবেক অধিনায়ক এলিস্টার কুককে টার্গেট করেছেন তিনি। স্টার্ক বলেছেন, ‘ইংল্যান্ড দলের প্রধান দুই ব্যাটসম্যান হচ্ছেন কুক ও রুট, যারা দারুন সব ক্রিকেট খেলেছেন এবং দেশে ও দেশের বাইরে সত্যিকারার্থে ভালো করেছেন। এই দু’জনের উভয়ের প্রতিই আমাদের খুব বেশি নজর রাখতে হবে এবং আশা করছি স্বল্প রাইেন তাদের থামাতে পারব। তাদের বিপক্ষে সাফল্য পেলে তাদের অনভিজ্ঞ ব্যাটিং অর্ডার ধ্বসে দিতে সমস্যা হবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা সকলেই অনুপ্রানীত। আপনি যখনই ঐ সিরিজের উল্লেখযোগ্য অংশ দেখবেন আপনি অনুপ্রানীত হবেনই। অবিশ্বাস্য সিরিজ ছিল এটি। তার বোলিং এবং আগ্রাসন দেখে অনেক ইংলিশের চোখেই ভয় ধরে গিয়েছিল। একজন বোলার হিসেবে এবং ব্যাটসম্যানদের সংগ্রাম করতে দেখাটা সব সময়ই অনেক বড় বিষয়।’

অস্টেলিয়া দল
স্টিভ স্মিথ (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার, ক্যামেরন ব্যানক্রফট, জ্যাকসন বার্ড, প্যাট কামিন্স, পিটার হ্যান্ডসকম্ব, জশ হ্যাজেলউড, উসমান খাজা, নাথান লিঁয়, শন মার্শ, টিম পাইন(উইকেটরক্ষক), চাঁদ সেয়ার্স, মিচেল স্টার্ক।

ইংল্যান্ড দল
জো রুট (অধিনায়ক), মঈন আলী, জনি বেয়ারস্টো (উইকেটরক্ষক), জ্যাক বল, গ্যারি ব্যালেন্স, স্টুয়ার্ট ব্রড, এলিস্টার কুক, ম্যাসন ক্রেন, টম কারান, বেন ফোকস, ডেভিড মালান, ক্রেইগ ওভারটন, মার্ক স্টোনম্যান, জেমস ভিন্স, ক্রিস ওকস।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

ঘারের ব্যথা নিয়েও খেলতে চান ওয়ার্নার

ঘারের ব্যথা নিয়েও খেলতে চান ওয়ার্নার

দ্বিতীয় টেস্টে ভারত দলে রদবদল

দ্বিতীয় টেস্টে ভারত দলে রদবদল

দ্বিতীয় প্রস্তুতিতে জিতলো ইংল্যান্ড

দ্বিতীয় প্রস্তুতিতে জিতলো ইংল্যান্ড

জয়ে ফিরলো মাশরাফির রংপুর

জয়ে ফিরলো মাশরাফির রংপুর