ক্রিকেটের মতো ফুটবলেও অবকাঠামোর উন্নয়ন চান জেমি ডে

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৯:৫১ পিএম, ২৪ জুলাই ২০২০
ক্রিকেটের মতো ফুটবলেও অবকাঠামোর উন্নয়ন চান জেমি ডে

ফাইল ফটো

বাংলাদেশে খেলাধুলার মাঝে ক্রিকেট সবচেয়ে বেশি বেশি জনপ্রিয়। যার কারণ দেশের ফুটবলের চেয়ে ক্রিকেট অনেক বেশি এগিয়ে রয়েছে। তবে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের প্রধান কোচ জেমি ডে মনে করেন, একদিন ফুটবলেও বাংলাদেশ এশিয়া মধ্যে সেরা দল হবে।

জেমি ডে বলেন, ‘আমার মতে ফুটবলও বাংলাদেশে বেশ জনপ্রিয়। কিন্তু পৃষ্ঠপোষকতা, অর্থ এবং অবকাঠামোগত কারণে এখানে ক্রিকেট অনেক বেশি এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশের ফুটবল অবকাঠামোরও উন্নতির প্রয়োজন।’

তিনি আরও বলেন, ‘তৃণমূল পর্যায় থেকে পেশাদার পর্যায়ের লিগ পর্যন্ত আমাদের অবকাঠামোগত উন্নতি অবশ্যই ঘটাতে হবে। আর এটিই ফুটবলের মানের উন্নয়ন ঘটাতে সাহায্য করবে এবং ভবিষ্যতে প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ ফুটবলার সৃষ্টিতে কার্যকরি ভূমিকা রাখবে।’

ফিফাডটকমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের প্রধান কোচ জেমি ডে এসব কথা বলেন। ২০২২ কাতার বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে বাছাইয়ে ভালো খেলা বাংলাদেশ ফুটবল দল আরও বেশি পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পারত বলেও জানান তিনি।

বাছাইপর্বে ‘ই’ গ্রুপে প্রতিপক্ষ হিসেবে শক্তিশালী দলগুলোকে পেয়েছে বাংলাদেশ। জেমি ডে বলেন, ‘আমরা জানি এখানে আমরা আন্ডারডগ হিসেবেই বিবেচিত এবং ফিফা/কোকাকোলা বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে প্রতিপক্ষ দলগুলোর অবস্থান আমাদের চেয়ে অনেক ওপরে। তারপরও চারটি দলের সঙ্গে আমরা খুবই ভালো খেলেছি। হয়তো আরও বেশি পয়েন্টও সংগ্রহ করতে পারতাম।’

এশীয় চ্যাম্পিয়ন কাতারের কাছে ২-০ গোলে পরাজিত হওয়ার আগে বাংলাদেশ দ্বিতীয় কোয়ালিফাইং রাউন্ড শুরু করেছিল আফগানিস্তানের কাছে ১-০ গোলে হার দিয়ে। পরে অবশ্য ওমানের কাছে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার আগে নাস্তানাবুদ করেছে ভারতকে। ওই ম্যাচের ফলাফলের জন্য এখনো আফসোস রয়েছে বাংলাদেশ শিবিরে।

বাংলাদেশ দলের এ ইংলিশ কোচ বলেন, ‘আমাদের সবগুলো ম্যাচেই আমরা ভালো পারফর্ম করেছি। শুধুমাত্র ওমানের বিপক্ষে দ্বিতীয়ার্ধে গোল হজম করাটা ছিল হতাশার।’

তবে এ মিশনে বাংলাদেশ দলের এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ ক্ষীণ। যদিও বাকি চার ম্যাচের তিনটিই অনুষ্ঠিত হবে ঘরের মাঠে। সেখানে আফগানিস্তান, ওমান ও ভারতের বিপক্ষে খেলাগুলোর জন্য অপেক্ষা করছেন জেমি ডে। তার মতে এখানে বড় পার্থক্য গড়ে দেওয়ার জন্য যে স্বাগতিক দর্শকের প্রয়োজন সেটি থেকে বাংলাদেশ বঞ্চিত হবে।

জেমি ডে বলেন, ‘এশিয়া কাপে খেলার যে স্বপ্ন আমাদের রয়েছে তা পূরণের জন্য ঘরের মাঠের খেলা থেকে পয়েন্ট সংগ্রহের দিকে আমরা তাকিয়ে আছি। তবে হতাশার বিষয় হচ্ছে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে আমাদের খেলতে হবে। যারা এসব খেলায় আমাদের সর্বাত্মক সমর্থন দিতে পারতো।’

২০১৮ সালে জেমি ডে বাংলাদেশে যোগদানের পর জাতীয় দল বেশ কিছু চমকপ্রদ ফল এনে দিয়েছে। যার সুবাদে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে সাত ধাপ এগিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে লাল সবুজ জার্সির দলটি। এছাড়া অনুর্ধ-১২৩ দলটি তার নেতৃত্বেই ২০১৯ সালের এসএ গেমসে তৃতীয় স্থান লাভ করেছিল।

বাংলাদেশের ফুটবল প্রসঙ্গে ৪০ বছর বয়সি এ কোচ বলেন, ‘২০১৮ সালে যখন আমি এখানে আসি, তখন জাতীয় দলের চেহারা ছিল একেবারেই যেনতেন। তবে আমি বিশ্বাস করি বিগত দুই বছরে আমরা অনেক পথ পাড়ি দিয়েছি। এখন আগামী দুই বছরে আমরা শিরোপা জয়ের কথা ভাবতে পারি।’

বাংলাদেশের মানুষ ক্রিকেটকেই বেশি ভালোবাসেন। এর কারণ হিসেবে এ দেশের ক্রিকেট ফুটবলের চেয়ে অনেক বেশি এগিয়ে রয়েছে বলে মনে করেন জেমি ডে। একদিন এখানকার ফুটবলও এশিয়া সেরা হবে বলে মনে করেন তিনি।

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

মাঠে ফুটবল ফেরাতে ওয়ালি ফয়সালের অনুরোধ

মাঠে ফুটবল ফেরাতে ওয়ালি ফয়সালের অনুরোধ

ঈদের পর ঢাকার বাইরে জামাল ভূঁইয়াদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প

ঈদের পর ঢাকার বাইরে জামাল ভূঁইয়াদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প

ক্ষতি পুষাতে আগেভাগে বিপিএল চান ফুটবলাররা

ক্ষতি পুষাতে আগেভাগে বিপিএল চান ফুটবলাররা

জেমি ডে’র সাথে চুক্তি নবায়ন করলো বাফুফে

জেমি ডে’র সাথে চুক্তি নবায়ন করলো বাফুফে