বিরাট হারার কথা ভাবেই না : অশ্বিন

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪৯ পিএম, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
বিরাট হারার কথা ভাবেই না : অশ্বিন

তাঁর অধিনায়কের জন্য এ বার সরব হলেন আর. অশ্বিন। অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহালি শুধুমাত্র জেতার কথাই ভাবেন। ‘‘কোহালির শরীরে কোনও নেতিবাচক তরঙ্গ নেই,’’ বলে দিচ্ছেন অশ্বিন। অধিনায়কের এই তীব্র জয়ের বাসনা দলের প্রত্যেকের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর থেকেই ওয়ান ডে দলে জায়গা হারিয়েছেন অশ্বিন। তাই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে টেস্ট সিরিজের পরেই ফিরে এসেছেন। বিজয় হাজারে ট্রফিতে তিনি তামিলনাড়ুর হয়ে খেলছেন। কোহালি এখন বিশ্বের সেরা অধিনায়কদের পাশে জায়গা করে নিয়েছেন। ‘‘বিরাট এমন একজন ক্যাপ্টেন, যে সব সময় জেতার জন্য ঝাঁপাবে। কখনও রক্ষণের কথা ভেবে খেলবে না। ওর শরীরে কোনও নেতিবাচক হাড় নেই। বিরাট সব সময় জেতার কথা বলে।’’ এখানেই না থেমে তারকা অফস্পিনার যোগ করছেন, ‘‘অধিনায়কের এই তীব্রতা দলটাকেই চনমনে করে দিচ্ছে। ক্রিকেটারেরা পরিষ্কার করে জানে, ঠিক কী চাওয়া হচ্ছে। দলটা সব সময় এগিয়ে চলেছে অধিনায়কের এই মনোভাবের জন্য।’’

দক্ষিণ আফ্রিকা সফর চলাকালীন দু’দেশের নানা প্রাক্তনের আক্রমণের মুখে পড়তে হয়েছে কোহালিকে। সেই সব প্রাক্তনকেও ঘুরিয়ে এক হাত নিয়েছেন অশ্বিন।

অশ্বিন বলেন, ‘‘পাকাপাকি অধিনায়ক হিসেবে বিরাটের এটাই প্রথম বিদেশ সফর। আমি নিশ্চিত, বিশ্বের সব সেরা ক্যাপ্টেনরাও তাদের ঘরের মাঠে বহু ম্যাচ খেলেছে এবং জিতেছে। আমি মনে করি, বিরাট ইতিমধ্যেই বিশ্বের সর্বকালের সেরা ক্যাপ্টেনদের পাশে আসন পাওয়ার যোগ্য। ঠিক হবে যদি ওকে আমরা কৃতিত্ব দিই।’’

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিন টেস্টের সিরিজে প্রথম দু’টি ম্যাচে খেলেছেন অশ্বিন। ওয়ান্ডারার্সের ঘাসের পিচে জায়গা পাননি প্রথম একাদশে। সেই কারণে ওয়ান্ডারার্স পিচ নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চান না। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকা নিয়ে বলতে গিয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘‘ব্যক্তিগত ভাবে আমি মনে করি, ব্যাটিংটা খুবই ভাল করেছি। যদি দ্বিতীয় নতুন বলটা ঠিক মতো খেলে দিতে পারতাম, তা হলে হয়তো আরও অনেক বড় তফাত গড়ে দিতে পারতাম। সেটা হয়নি বলে কিছুটা হতাশ হয়েছিলাম। কিন্তু আমার ভূমিকাটা ছিল কাউন্টার অ্যাটাকের।’’ তিনি আরও মনে করছেন, টেস্ট সিরিজ ভারত ১-২ হেরে গেলেও খুবই লড়াই হয়েছে এবং ভারত জয়ের কাছাকাছিও ছিল। অশ্বিন মনে করছেন, প্রথম দু’টি টেস্টেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করার পরে হেরেছে দল। ‘‘আমরা খুবই ভাল ক্রিকেট খেলেছি। দু’টো টেস্টেই যদি আমরা টসে জিততাম, তা হলে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ অন্য রকম হতে পারত। টিম হিসেবে আমরা দক্ষিণ আফ্রিকায় দারুণ খেলেছি। ইংল্যান্ড সফরের জন্য যা আমাদের খুবই উদ্বুদ্ধ করছে,’’ বলছেন অশ্বিন। ওয়ান্ডারার্সের জয় নিয়ে তিনি বলেন, ‘‘আমাদের টিমের এই জয় প্রাপ্য ছিল।’’

আইপিএলে এ বার ঘরের টিম চেন্নাই সুপার কিংগসে নেই তিনি। নতুন দল কিংগস ইলেভেন পঞ্জাব। অশ্বিন বলছেন, তিনি চেন্নাইকে ‘মিস’ করবেন। ‘‘দশ বছর ধরে আমি চেন্নাইয়ে ছিলাম। আমার ঘরের শহর। চিপকে ক্রিকেট খেলে আমি বড় হয়েছি। মনে হয় যেন মাঠটা আমারই নিজের জায়গা। যখনই এখানে বল করতে নেমেছি, দর্শকরা যে ভাবে উৎসাহ দিয়েছেন, কী করে ভুলব! কিন্তু আইপিএলের নিলামে কখন কী হয় কিছুই বলা যায় না।’’ চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে খেলতে কেমন লাগবে? অশ্বিনের জবাব, ‘‘আমি আবার নিজের ক্রিকেট ভক্তদের সামনে বল করার সুযোগ পাব। সেটা ভেবেই আনন্দ হচ্ছে ওই ম্যাচটা নিয়ে। এই মাঠ থেকেই আমার উত্থান। সেখানে চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে খেলতে নামাটা হয়তো আমাকে আরও বেশি উদ্বুদ্ধ করবে।’’


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

ছেলের বাবা হলেন মুশফিক

ছেলের বাবা হলেন মুশফিক

জিম্বাবুয়ে ফিরলেন ভিটোরি

জিম্বাবুয়ে ফিরলেন ভিটোরি

ফিরলেন সাব্বির, বাদ সানজামুল-রুবেল

ফিরলেন সাব্বির, বাদ সানজামুল-রুবেল

গম্ভীরকে নিয়ে ৩টি শব্দ বললেন শাহরুখ

গম্ভীরকে নিয়ে ৩টি শব্দ বললেন শাহরুখ