শাস্তির বিরুদ্ধে কেন আপিল করবেন না স্মিথ?

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৩৫ পিএম, ০৪ এপ্রিল ২০১৮
শাস্তির বিরুদ্ধে কেন আপিল করবেন না স্মিথ?

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সম্প্রতি হেরে যাওয়া টেস্ট সিরিজের কলঙ্কের জন্য দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ক্যামেরন বেনক্রফট। এছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ফিল্ডিং করার সময় তিনি ‘বল টেম্পারিং’-এর যে অপরাধ করেছেন তো পূর্ব পরিকল্পিত ছিল বলে স্বকিার করে নিয়েছে অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ও তার সহকারী ডেভিড ওয়ার্নার।

ওই অপরাধে ক্যামেরন বেনক্রফটকে ৯ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করলেও স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারকে অস্ট্রেলিয়ার সব ধরনের ক্রিকেট থেকে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার এমন সিদ্ধান্তের পর থেকে অনেক আলোচনা-সামালোচনা শুরু হয়েছে। অনেকে বলছেন তাদের বিরুদ্ধে এত বড় শাস্তি না দিলেও পারতো ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

তবে সব সমালোচনার বন্ধ করে দিলে স্টিভ স্মিথ নিজেই। তিনি আজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে জানিয়ে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তিনি কোন আপিল আবেদন করবেন না।

নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে এক সপ্তাহের মধ্যে আবেদন করা সুযোগ আছে তিন ক্রিকেটারের। স্মিথের এ ঘোষণা পর আর বলার অপেক্ষা রাখে না, সাবেক এ অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক সব ধরনের ক্রিকেট থেকে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধই থাকছেন।

টুইটারে স্মিথ লিখেন, ‘আমি আবার দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে চাই। কিন্তু যেটা বলেছিলাম, অধিনায়ক হিসেবে আমি সম্পূর্ণ দায়িত্ব নিয়েছি। আমি এ শাস্তিকে চ্যালেঞ্জ জানাতে চাই না। শাস্তির মধ্য দিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একটি কঠিন বার্তা পাঠিয়েছে এবং আমি সেটা গ্রহণ করেছি।’

তবে এর আগে এসিএ’র সভাপতি গ্রেগ ডায়ের বলেছিলেন, ‘আমরা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে শাস্তির বিষয়টি পুনরায় ভাবতে বলেছি। এবং শাক্তি কমাতে বলেছি। পাশাপাশি এটাও বলেছি খেলোয়াড়রা যেন ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলার সুযোগ পায়। আমরা মনে করি এই শাস্তি অসামঞ্জস্য। আমরা তাদের বোঝাতে চেয়েছি, এমন ঘটনা আগেও ঘটেছিল কিন্তু এতো শাস্তি পেতে হয়নি।’

এদিকে স্মিথ নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিল না করার ঘোষণায় দসামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবার আলোচনা শুরু হয়েছে। অনেতেই বলছেন, স্মিথ নিজেই যেখানে দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন সেখানে রায়ে বিরুদ্ধে আপিল করা যুক্তি সংগত নাও হতে পারতো। আর সে জন্যই হয়তো স্মিথ তার শাস্তি মেনে নিয়েছেন।

আবার অনেকে বলছেন, বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে ক্রিকেট বোর্ড বেশ ক্ষেপেছে। ফলে আপিল করে লাভ নাও হতে পারতো। ফলে স্মিথ হয়তো বেশ ভেবে-চিন্তেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এদিকে স্মিথ আপিল না করার সিদ্ধান্ত জানালেও বাকি দুইজন ওয়ার্নার ও বেনক্রফট এ বিষয়ে এখনো কিছু জানায়নি। আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) পর্যন্ত তাদের আপিল করার সময় রয়েছে।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

ওয়ার্নারকে সাহস দিয়ে মোস্তাফিজের টুইট

ওয়ার্নারকে সাহস দিয়ে মোস্তাফিজের টুইট

চারদিকে কান্নার রোল, ঘুরে দাঁড়াতে পারবে অস্ট্রেলিয়া?

চারদিকে কান্নার রোল, ঘুরে দাঁড়াতে পারবে অস্ট্রেলিয়া?

পদত্যাগই করলেন লেহম্যান

পদত্যাগই করলেন লেহম্যান

স্মিথ-ওয়ার্নার-ব্যানক্রফটের ফ্যাক্টবক্স কতটুকু জানেন?

স্মিথ-ওয়ার্নার-ব্যানক্রফটের ফ্যাক্টবক্স কতটুকু জানেন?