মশায় নাস্তানাবুদ মোস্তাফিজরা

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০০ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০১৮
মশায় নাস্তানাবুদ মোস্তাফিজরা

ব্যাটে-বলের লড়াইয়ে জমে উঠেছে আইপিএলের ১১তম আসর। হায়দরাবাদে আজ রোহিত শর্মাদের মুখোমুখি হচ্ছে ধাওয়ানরা। অরেঞ্জ বাহিনীর সামনে আজ কঠিন পরীক্ষাই দিতে হবে হার্দিক পান্ডিয়াদের। কিন্তু তার আগে আরেক কঠিন প্রতিপক্ষের মুখে পড়েছেন মুস্তাফিজরা। মশার উপদ্রবে রীতিমতো নাস্তানাবুদ শচীন শিষ্যরা।

জানা গেছে, রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের ড্রেসিংরুমে মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ তারা। পুরো ড্রেসিংরুম মশায় ভর্তি। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে কর্তৃপক্ষের কাছে মশা মারার র‌্যাকেট চেয়ে পাঠান রোহিতরা। ক্রিকেটে মনোযোগ বাদ দিয়ে তা মারতে মন নিবিষ্ট করতে হচ্ছে। দুর্দশা এখানেই শেষ নয়, অনুশীলন করতে গিয়ে মশার অত্যাচারে নাজেহাল হয়ে পালানোর মতো অবস্থা মুম্বাই ক্রিকেটারদের। কেউ জায়গায় দাঁড়িয়ে প্র্যাকটিস করতে পারেননি। এমন পরিস্থিতিতে হতভম্ব ক্রিকেটাররা।

মুম্বাইয়ের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বললেন, গোটা দেশে মশার কামড় থেকে নানা ধরনের রোগ হচ্ছে। কিছু একটা হয়ে গেলে তো আমাদের সব যাবে! আমরা এখন শরণাপন্ন ফিজিওর। মশার কামড়ে যাতে রোগ না হয় সেজন্য তার সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

তিনি বলেন, গতকালই মলম আনতে বলেছিলাম। তা ফিজিওর ব্যাগে থাকছে। গোটা শরীরে মেখে নামছেন ক্রিকেটাররা।

এমন ন্যাক্কারজনক অব্যবস্থার জন্য হায়দরাবাদ ক্রিকেট সংস্থার দিকেই অভিযোগের আঙুল উঠছে। কর্তৃপক্ষ জানাল, মুম্বাইয়ের পক্ষ থেকে মৌখিকভাবে প্রতিবাদ জানানোর পর বুধবারই গোটা স্টেডিয়ামে মশা তাড়ানোর স্প্রে করা হয়েছে। কেবল ড্রেসিংরুম, মাঠেই নয়, গ্যালারিতেও মশার উপদ্রব প্রবল। তা দর্শকদের চরম ভোগান্তির কারণ হবে বলে শঙ্কা রয়েছে।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

২০১১ বিশ্বকাপে ভারতের এক ক্রিকেটার ফিক্সিংয়ে জড়িত

২০১১ বিশ্বকাপে ভারতের এক ক্রিকেটার ফিক্সিংয়ে জড়িত

স্মিথ-ওয়ার্নারদের প্রতারক মনে করেন না গাঙ্গুলি

স্মিথ-ওয়ার্নারদের প্রতারক মনে করেন না গাঙ্গুলি

নাসির-শান্ত-মাশরাফির দাপটে চ্যাম্পিয়ন আবাহনী

নাসির-শান্ত-মাশরাফির দাপটে চ্যাম্পিয়ন আবাহনী

একই পথে হাঁটলেন ওয়ার্নারও

একই পথে হাঁটলেন ওয়ার্নারও