আশরাফুল উড়ছেই : জিতেও সুপার সিক্সে বঞ্চিত মোহামেডান

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩১ এএম, ২১ মার্চ ২০১৮
আশরাফুল উড়ছেই : জিতেও সুপার সিক্সে বঞ্চিত মোহামেডান

মোহাম্মদ আশরাফুলের সেঞ্চুরি ম্লান করে দিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেটে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে জয় পেয়েছে মোহামেডান স্পোটিং ক্লাব। কলাবাগান ক্রীড়া চক্রকে ২ উইকেটে হারিয়েছে মোহামেডান। তবে এতেও কোন লাভ হয়নি তাদের। লিগে পঞ্চম জয়ের স্বাদ নিয়ে সুপার সিক্সে উঠতে পারেনি মোহামেডান।

পয়েন্ট টেবিলের পঞ্চমস্থানে থাকা শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও ষষ্ঠস্থানে থাকা গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম থাকায় সুপার সিক্সের টিকিট পায়নি মোহামেডান। লিগ পর্ব শেষে ১১টি খেলায় অংশ নিয়ে সমান ১২ করে পয়েন্ট রয়েছে পঞ্চম স্থানে থাকা শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও ষষ্ঠ স্থানে থাকা গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের। মোহামেডানের রয়েছে ১১ পয়েন্ট। এদিকে লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে আশরাফুলের সর্বোচ্চ ১২৭ রান সত্বেও হার দিয়ে লিগ পর্ব শেষ হলো পয়েন্ট টেবিলের সর্বশেষ অবস্থানে থাকা কলাবাগান। ১১ খেলায় তাদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট।

মঙ্গলবার সাভারের বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে কলাবাগান। ২০ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর তিন নম্বরে নামা আশরাফুলের দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুন্যে রানের চাকা ঘুড়তে থাকে কলাবাগানের। শেষ পর্যন্ত ১১২তম বলে এবারের লিগে তৃতীয় সেঞ্চুরির স্বাদ নেন অ্যাশ। দলের ইনিংসের ৪০তম ওভারের চতুর্থ বলে মোহামেডানের বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামকে ছক্কা মেরে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন আশরাফুল।

তিন অঙ্কে পা দিয়েও নিজের ইনিংস বড় করছিলেন আশরাফুল। এক পর্যায়ে লিস্ট ‘এ’, এমনকি আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস খেলে ফেলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ১২৪ বলে ১২৭ রান করে থামেন আশরাফুল। তার ইনিংসে ১৩টি চার ও ৩টি ছক্কার মার ছিল। এছাড়া কলাবাগানের পক্ষে ওপেনার ওয়ালিউল করিম ৪৬ ও অধিনায়ক মাহমুদুল হাসান ৩৩ রান করেন। তারপরও ১৩ বল বাকি থাকতে ২৬০ রানে গুটিয়ে যায় কলাবাগান। মোহামেডানের বাঁ-হাতি পেসার কাজী অনিক ৪৯ রানে ৬ উইকেট নেন। লিস্ট ক্যারিয়ারে এটিই তার সেরা বোলিং ফিগার।

জয়ের জন্য ২৬১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দলীয় ২৯ রানেই প্রথম উইকেট হারায় মোহামেডান। এরপর দুই ওপেনার এনামুল হক (দ্বিতীয়) ও রনি তালুকদারের জোড়া হাফ-সেঞ্চুরিতে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় তারা। তবে এনামুল ৫৭ ও রনি ৫১ রানে ফিরে যাবার পর মোহামেডানের মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যানরা দলের হাল ধরতে পারেননি।

তবে শেষদিকে তাইজুলের অপরাজিত ৩৪ ও অনিকের অপরাজিত ১৫ রানের সুবাদে ৪ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় মোহামেডান। ম্যাচ সেরা হয়েছেন মোহামেডানের অনিক।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

হাথুরুর পর বাংলাদেশ ছাড়লেন হ্যালসলও

হাথুরুর পর বাংলাদেশ ছাড়লেন হ্যালসলও

‌‘রাশিয়ার ফুটবলাররা স্বচ্ছ ও পরিষ্কার’

‌‘রাশিয়ার ফুটবলাররা স্বচ্ছ ও পরিষ্কার’

মাশরাফিকে ফেরাতে মানববন্ধন

মাশরাফিকে ফেরাতে মানববন্ধন

র‌্যাংকিংয়ে সেরা দশে মোস্তাফিজ

র‌্যাংকিংয়ে সেরা দশে মোস্তাফিজ