টেইলের ১৮১ রানে বৃথা ইংল্যান্ডের জোড়া সেঞ্চুরি

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৩৫ এএম, ০৮ মার্চ ২০১৮
টেইলের ১৮১ রানে বৃথা ইংল্যান্ডের জোড়া সেঞ্চুরি

ইংল্যান্ডের দুই ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো ও জো রুটের জোড়া সেঞ্চুরি বৃথা করে দিয়ে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে দুর্দান্ত এক জয়ের স্বাদ দিলেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রস টেইলর। ১৮১ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেছেন তিনি। ৫ উইকেটের এ জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের ২-২এ সমতায় ফিরলো নিউজিল্যান্ড।

ডুনেডিনে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্বান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। উদ্বোধনী জুটিতে ৭৭ রান পায় ইংল্যান্ড। ৪১ বলে ৪২ রান করে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফিরেন ইংলিশ ওপেনার জেসন রয়। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে নিউজিল্যান্ড বোলারদের তুলোধুনো করেছেন ইংল্যান্ডের আরেক ওপেনার বেয়ারস্টো ও জো রুট। দলের বড় সংগ্রহের ভিত গড়তে গিয়ে সেঞ্চুরির স্বাদ পান দু’জনই। ক্যারিয়াওে বেয়ারস্টো তৃতীয় ও রুট ১১তম সেঞ্চুরির স্বাদ পান। দ্বিতীয় উইকেটে ১৬৪ বলে ১৯০ রানও যোগ করেন তারা। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে যেকোন উইকেটে চতুর্থ সর্বোচ্চ সেঞ্চুরি।

বেয়ারস্টো-রুটের পর ইংল্যান্ডের আর কোন ব্যাটসম্যানই বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। তারপরও ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ৩৩৫ রানের সংগ্রহ পায় ইংলিশরা। বেয়ারস্টো ১৪টি চার ও ৭টি ছক্কায় ১০৬ বলে ১৩৮ ও রুট ৬টি চার ও ২টি ছক্কায় ১০১ বলে ১০২ রান করেন। স্বীকৃত ব্যাটসম্যানরা দু’অংকের কোটা পেরোতে না পারলেও শেষদিকে দুই বোলার টম কারান ২২ ও আদিল রশিদ ১১ রানে অপরাজিত থাকেন। নিউজিল্যান্ডের ইশ সোধি নেন ৪ উইকেট।

জয় ও সিরিজে সমতা ফেরানোর জন্য ৩৩৬ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুরুতেই হোচট খায় নিউজিল্যান্ড। শূন্য রানে প্রথম ও ২ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় তারা। শুরুতে ধাক্কা খাওয়া নিউজিল্যান্ডকে খাদের কিনারা থেকে পরবর্তীতে টেনে তুলেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও টেইলর। তৃতীয় উইকেটে ৮৪ রান যোগ করেন তারা। ৪৮ বলে ৪৫ রান করে উইলিয়ামসন ফিরে গেলেও উইকেটরক্ষক টম লাথামকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান টেইলর।

দু’জনের দায়িত্বপূর্ণ ব্যাটিং নৈপুণ্যে ম্যাচ জয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে নিউজিল্যান্ড। কারণ, চতুর্থ উইকেটে ১৫৫ বল মোকাবেলায় ১৮৭ রান যোগ করেন টেইলর-লাথাম। ৬৭ বলে ৭১ রান করে লাথাম ফিরেও গেলেও ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৯তম সেঞ্চুরি তুলে নেন নিউজিল্যান্ডের প্রধান ভরসা হয়ে ক্রিজে ছিলেন টেইলর।

লাথাম যখন বিদায় নেন তখন ৪৮ বলে ৬৩ রান প্রয়োজন ছিল কিউইদের। ছয় ও সাত নম্বর ব্যাটসম্যান কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম-হেনরি নিকোলসকে নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন টেইলর। গ্র্যান্ডহোম ১২ বলে ২৩ ও নিকোলস ১২ বলে অপরাজিত ১৩ রান করেন। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলে ১৮১ রানে অপরাজিত থাকেন ম্যাচের সেরা টেইলর। ১৭টি চার ও ৬টি ছক্কায় ১৪৭ বল মোকাবেলা করে ম্যাচজয়ী ইনিংসটি সাজান টেইলর।

এ জয়ের ফলে ২-২ এ সমতায় ফিরলো নিউজিল্যান্ড। একই সিরিজের শেষ ম্যাচটি অঘোষিত ফাইনাল ম্যাচ হয়ে দাঁড়ালো। আগামী ১০ মার্চ ক্রাইস্টচার্চে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
ইংল্যান্ড : ৩৩৫/৯, ৫০ ওভার (বেয়ারস্টো ১৩৮, রুট ১০২, সোধি ৪/৫৮)।
নিউজিল্যান্ড : ৩৩৯/৫, ৪৯.৩ ওভার (টেইলর ১৮১*, লাথাম ৭১, কুরান ২/৫৭)।

ফল : নিউজিল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : রস টেইলর (নিউজিল্যান্ড)।
সিরিজ : পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-২ সমতা।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

নিষিধাজ্ঞার দাঁড়প্রান্তে ওয়ার্নার

নিষিধাজ্ঞার দাঁড়প্রান্তে ওয়ার্নার

ভারতকে হারিয়ে দিল শ্রীলঙ্কা

ভারতকে হারিয়ে দিল শ্রীলঙ্কা

নেইমারবিহীন পিএসজিকে রুখে দিল রিয়াল

নেইমারবিহীন পিএসজিকে রুখে দিল রিয়াল

আবারও দিল্লির দায়িত্ব পেলেন গম্ভীর

আবারও দিল্লির দায়িত্ব পেলেন গম্ভীর