আনন্দিত-উৎসাহিত মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৬:১৬ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
আনন্দিত-উৎসাহিত মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন

ছবি : বিসিবি

২০১৭ সালে বাংলাদেশ ক্রিকেটে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অভিষেক হলেও এখনো টেস্ট খেলা হয়নি টাইগার পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের। প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কা সফরের প্রাথমিক স্কোয়াডে ২৭ জনের দলে ডাক পেয়েছেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে এখনো শঙ্কা না কাটলেও ইতোমধ্যে টাইগারদের অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। করোনা পরবর্তী বিদেশি কোচিং স্টাফদের নিয়ে রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) থেকে মিরপুরে শুরু হয়েছে টাইগারদের দলীয় অনুশীলন ‘স্কিল ক্যাম্প’। তবে সফর উপলক্ষে জিও (সরকারি আদেশ) প্রাপ্ত ২৭ জনই অনুশীলনে ফিরতে পারেননি।

অনুশীলনে ডাক পাওয়া ২৭ জনের মাঝে অনেকে ঢাকার বাইরে থেকে আসায় কয়েকজনের শরীরে করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় মোট ১১ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। তাদের মধ্যে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনও ছিলেন। যার ফলে ঢাকায় ফিরলেও যোগ দিতে পারেননি জাতীয় দলের স্কিল ক্যাম্পে।

জিও প্রাপ্ত ২৭ জন ক্রিকেটারের মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) তৃতীয় দফায় করোনা পরীক্ষায় আবু জায়েদ রাহী করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে। এছাড়া বাকি ২৬ জন করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে। যার ফলে রাহী ছাড়া বাকি ২৬ জন বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) থেকেেই যোগ দিয়েছেন অনুশীলন ক্যাম্পে। একই সঙ্গে নতুন যুক্ত হওয়া ১০ জনও এখন হোটেল সোনারগাঁওয়ে বায়ো-সুরক্ষা পরিবেশে থাকবেন। 

একই সাথে দীর্ঘ প্রায় একবছর পর মাঠের অনুশীলনে ফিরেছেন টাইগার পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। হোম ভেন্যুর সেন্টার উইকেটে টাইগার ব্যাটসম্যানদের সামনে বোলিং অনুশীলন করে উৎসাহিত তিনি।

বিসিবির দেওয়া ভিডিও বার্তায় সাইফুদ্দিন বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, দীর্ঘ প্রায় ছয়মাস পর দলের সাথে মিরপুরে অনুশীলন করলাম, খুবই আনন্দিত আমি। প্রথমবারের মতো সেন্টার উইকেটে বোলিং করতে পেরে খুব উৎসাহিত আমি। আগামী আরও কিছুদিন সময় পাব। তো, যতটা নিজেকে ওভারকাম করা যায়, নিজেকে আরও যতটা ডেভেলপ করা যায় -এসব নিয়ে কাজ করব। যেহেতু প্রথমবারের মতো টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পেয়েছি, আমি খুবই আনন্দিত। চেষ্টা করব নিজের সেরাটা দেওয়ার।’

লকডাউনের সময়ে নিজ জেলা ফেনীতে ছিলেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। সেখানে ফিটনেস নিয়ে কাজ করলেও বোলিং নিয়ে কাজ করতে পারেননি। লকডাউনের সময় নিয়ে তিনি বলেন, ‘মহামারি করোনাকালীন সময় আমার জন্য কিছুটা ডিফিকাল্ট ছিল। যেহেতু আমি ফেনীতে ছিলাম, ফিটনেসের কাজ করতে পারলেও স্কিলের দিক থেকে অন্য প্লেয়ারদের চেয়ে পিছিয়ে গেছি। কারণ, ব্যাটিংটা যেভাবেই হোক করতে পেরেছে কিন্তু বোলিংটা একদমই করতে পারিনি।’

ঢাকায় ফিরে কোয়ারেন্টাইনে থাকলেও একাডেমিতে থাকায় সেখানেই গত দুইদিন বোলিং অনুশীলন করতে পেরেছেন টাইগার পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। বলেন, ‘আজকে বোলিং করলাম, গত দুইদিনও বোলিং (একাডেমি মাঠে) করেছি। তবে আমার যে রিদমটা সেটা পেতে কিছুটা সময় লাগবে। কিছুটা ডিসকম্পোর্ট ফিল করতেছি। তারপরও আশাবাদী, কয়েকদিন যদি বল করতে পারি তাহলে হয়তোবা আগের রিদমে ফিরে আসতে পারব।’
sportsmail24
প্রথমবারের মতো টেস্ট স্কোয়াডে নিজের নাম রয়েছে। টেস্ট খেলার বিষয়ে সাইফুদ্দিন বলেন, ‘প্রত্যেক ক্রিকেটারেরই ড্রিম থাকে টেস্ট ক্রিকেটার হওয়ার, আমিও ব্যতিক্রম নই। ইনশাআল্লাহ, চেষ্টা থাকবে যদি সুযোগ পাই, ভালো কিছু করার।’

টেস্ট খেলার স্বপ্ন থাকলেও সাইফুদ্দিনের এখন মূল লক্ষ্য নিজেকে ফিরে পাওয়া। টাইগার এ পেস অলরাউন্ডার বলেন, ‘এখন আমার মূল টার্গেট হলো নিজেকে ফিট করা। নিজের স্কিলের ডেভেলপ করা। কিছুটা চিন্তিত আমার স্কিল নিয়ে। কারণ, অনেকদিন প্রায় ৬-৭ মাস যাবত ব্যাটি-বোলিং ওভাবে করতে পারিনি। ইন্টারনেশনাল মানের হতে হলে যেটা করতে হয়। তারপর যে সময়টা আছে, যদি আমরা শ্রীলঙ্কাতে যাই, ওই সময়টাতে নিজেকে আরও মেলে ধরার চেষ্টা করব।’

অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনেরে ইনজুরির সমস্যা রয়েছে। যার কারণে বেশ কয়েকটি সিরিজে তিনি খেলতে পারেননি। ইনজুরি নিয়ে সাইফুদ্দিন বলেন, ‘সবসময় আমার এটা নিয়ে চিন্তা থাকে, আমার ইনজুরিটা নিয়ে। যেহেতু আমার মেজর একটা ইনজুরি আছে, ব্যাক পেইন। আমি প্রায় ৬-৭ মাস মাঠের বাইরে ছিলাম। এরপর ফিট হয়ে এসে একটা-দুইটা ম্যাচ খেলার পর আবার করোনার কারণে ৬ মাস পিছিয়ে গেলাম। পুরো এক বছরের মতো আমি মাঠের বাইরে। সো, যে কারণে আমার জন্য খুব বেশি ডিফিকাল্ট। তবে যেহেতু সামনে অনেকগুলো ম্যাচ আছে, নিজেকে যত তাড়াতাড়ি অভারকাম করতে পারব, ততই আমার জন্য বেটার। ইনশাআল্লাহ, আমার ওই লক্ষ্যটা থাকবে। যত তাড়াতাড়ি ম্যাচ ফিটনেসটা আনতে পারি তত তাড়াতাড়ি আমার এবং দলের জন্য ভালো হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনার কারণে যেহেতু একাই ছিলাম ফেনীতে। তো নিজেকে ফিটনেস নিয়ে সময় দেওয়া বেশি সুযোগ পেয়েছি, অন্যান্য সময়ের তুলনায়। এর পাশাপাশি মানসিক দিকেও স্ট্রং এবং ইম্প্রুফ করেছি বলে মনে করি। কারণ, অনেক সময় কাজ করতে মন চাইতো না তারপর নিজেকে পুশ করছি, বুস্ট আপ করেছি, পারতেছি না তারপরও করতেছি। এ জিনিজগুলো নিজের মানসিক শক্তি যুগিয়েছে।’

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

স্কিল ক্যাম্পটি অপরিহার্য ছিল : মমিনুল হক

স্কিল ক্যাম্পটি অপরিহার্য ছিল : মমিনুল হক

গ্লাভস ছেড়ে লেগ স্পিনার মুশফিক

গ্লাভস ছেড়ে লেগ স্পিনার মুশফিক

এখনো সব শেষ নয়, আরও ভালো কিছু হবে : তাসকিন

এখনো সব শেষ নয়, আরও ভালো কিছু হবে : তাসকিন

সব ফরম্যাটে নিয়মিত হতে চান মোস্তাফিজ

সব ফরম্যাটে নিয়মিত হতে চান মোস্তাফিজ