শেষ দিনের লড়াইয়ে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৫:৪৯ পিএম, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১
শেষ দিনের লড়াইয়ে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ

চট্টগ্রাম টেস্ট জিততে ম্যাচের পঞ্চম ও শেষ দিনে বাংলাদেশের দরকার ৭ উইকেট। বিপরীতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয় পেতে শেষ দিনে করতে হবে আরও ২৮৫ রান। বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেওয়া ৩৯৫ রানের টার্গেটে চতুর্থ দিন শেষে ৩ উইকেটে ১১০ রান করেছে ক্যারিবীয়রা।

শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) চতুর্থ দিন অধিনায়ক মমিনুল হকের সেঞ্চুরিতে ৮ উইকেটে ২২৩ রানে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। ফলে প্রথম ইনিংস থেকে ১৭১ রানের লিড নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩৯৫ রানের বড় টার্গেট দেয় বাংলাদেশ। মমিনুল ১১৫ রান করেছিলেন।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুক্রবার তৃতীয় দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩ উইকেটে ৪৭ রান করেছিল বাংলাদেশ। এমন অবস্থায় ৭ উইকেট হাতে নিয়ে ২১৮ রানে এগিয়েছিল টাইগাররা। শুক্রবার মমিনুল ৩১ ও মুশফিকুর রহিম ১০ রান নিয়ে খেলতে নামেন। মুশফিক ব্যক্তিগত ১৮ রানে আউট হলে লিটন দাসকে নিয়ে দলের স্কোর ও লিড বাড়ান মমিনুল।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের সামনে প্রতিরোধ গড়ে ৬১তম ওভারের চতুর্থ বলে ৪১তম টেস্টে ১০তম সেঞ্চুরি পূরণ করেন টাইগার দলপতি। ১৭৩তম বলে তিন অংকে পা দিয়ে দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে লঙ্গার ভার্সনে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক বনে যান মমিনুল। পেছনে পড়েন ৯টি সেঞ্চুরি করা সতীর্থ তামিম ইকবাল।

মমিনুলের সেঞ্চুরির পর প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন লিটন। টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ১১২ বলে বাউন্ডারিতে ৬৯ রানে আউট হন তিনি। পঞ্চম উইকেটে মমিনুল-লিটন ২১১ বলে ১৩৩ রান যোগ করেন। লিটনের বিদায়ের পরই মমিনুলের ১১৫ রানের নান্দনিক ইনিংসের সমাপ্তি ঘটে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার শ্যানন গাব্রিয়েলের বলে শিকার হবার আগে ১৮২ বল খেলে ১০টি চার মারেন তিনি।

এরপর মেহেদী হাসান মিরাজ ৭, তাইজুল ইসলাম ৩ রান করে আউট হন। তাইজুলের আউটের পরই ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। ১ রানে অপরাজিত থাকেন নাঈম হাসান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই স্পিনার কর্নওয়াল-ওয়ারিকান ৩টি করে ও গাব্রিয়েল ২টি উইকেট নেন।

ইনিংস ঘোষণা করে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জয়ের জন্য ৩৯৫ রানের টার্গেট দেয় বাংলাদেশ। সেই লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা ভালোই ছিল সফরকারীদের। ১৬ ওভার বিপদ ছাড়াই পার করেন দেন দুই ওপেনার অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও জন ক্যাম্পবেল।

তবে ১৭তম ওভারের প্রথম বলে ক্যাম্পবেলকে ২৩ রানে থামিয়ে বাংলাদেশকে প্রথম ব্রেক-থ্রু এনে দেন মিরাজ। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর বোর্ডে ২০ রান যোগ আরও ২ উইকেট তুলে নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে চাপে ফেলেন মিরাজ। ব্র্যাথওয়েট ২০ ও শায়নে মোসলে ১২ রান আউট হন।

এনক্রুমার বোনার ১৫ ও কাইল মায়ারস ৩৭ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেন। বাংলাদেশের মিরাজ ১৬ ওভারে ৫২ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর কার্ড
বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস : ৪৩০/১০, ১৫০.২ ওভার (মিরাজ ১০৩, সাকিব ৬৮, সাদমান ৫৯, ওয়ারিকান ৪/১৩৩)।
ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস : ২৫৯/১০, ৯৬.১ ওভার (ব্যাথওয়েট ৭৬, ব্লাকউড ৬৮: মিরাজ ৪/৫৮)।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস : ২২৩/৮ (ডি.) (মমিনুল ১১৫, মুশফিক ১৮, লিটন ৬৯; কর্নওয়াল ২৭-২-৮১-৩, গ্যাব্রিয়েল ১২-০-৩৭-২, ওয়ারিক্যান ১৭.৫-০-৫৭-৩,)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২য় ইনিংস : (লক্ষ্য ৩৯৫) ৪০ ওভারে ১১০/৩ (ব্র্যাথওয়েট ২০, ক্যাম্পবেল ২০, মোজলি ১২, বনার ১৫*, মেয়ার্স ৩৭*; মিরাজ ১৬-২-৫২-৩)।

[sportsmail24.com এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও। খেলাধুলার ভিডিও-ছবি এবং  সর্বশেষ সংবাদ পড়তে ব্রাউজ করুন যেকোন ঠিকানায়। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে ইনস্ট্রল করে নিতে আমাদের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

মমিনুলের দশম টেস্ট সেঞ্চুরি, দু’য়ে নামলো তামিম

মমিনুলের দশম টেস্ট সেঞ্চুরি, দু’য়ে নামলো তামিম

স্ক্যান রিপোর্টে সাকিবকে নিয়ে শঙ্কা বাড়লো

স্ক্যান রিপোর্টে সাকিবকে নিয়ে শঙ্কা বাড়লো

পরিবর্তনে যেমন হলো বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সিরিজ সূচি

পরিবর্তনে যেমন হলো বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সিরিজ সূচি

প্রথম সেঞ্চুরিতেই তিন বড় ভাইয়ের পাশে মিরাজ

প্রথম সেঞ্চুরিতেই তিন বড় ভাইয়ের পাশে মিরাজ