যে কারণে বার্সেলোনায় থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেসি

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০১:০৫ পিএম, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
যে কারণে বার্সেলোনায় থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেসি

ছবি : সাক্ষাৎকারের ভিডিও থেকে নেওয়া

নানা নাটকীয়তার পর বার্সেলোনাতেই থাকছেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন ফুটবল যাদুকর লিওনেল মেসি। তবে প্রাণের ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্ত যেমন হুট করে নেননি, তেমনি আবারও থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্তও হুট করে নেওয়া হয়নি। গত ১০ দিনে মেসিকে অনেক কিছু সামলাতে হয়েছে।

বার্সেলোনা ছাড়তে চাওয়ার সংবাদ পরিবারকে জানানোর পর পরিবারের সদস্যরা ভেঙে পড়েছিল। স্ত্রী বুকে কষ্ট চেপে মেসিকে সমর্থন দিলেও বার্সাতেই থেকে যাওয়ার অনুরোধ ছিল সন্তানদের। এছাড়া রিলিজ ক্লজের অর্থও বড় ভূমিকা পালন করেছে।

শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) ফুটবল বিষয়ক সংবাদমাধ্যম গোল ডটকমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা জানান বার্সা ফরোয়ার্ড।

মেসি বলেন, ‘আমি যখন আমার পরিবারকে জানালাম আমি বার্সা ছাড়তে চাই তখন নাটকীয় এক অবস্থার সৃষ্টি হয়ে গিয়েছিল। পুরো পরিবারের সবাই অনেক কান্নাকাটি করছিল। আমার বাচ্চারা কেউই এখানকার স্কুল এবং বন্ধুদের ছেড়ে যেতে চাচ্ছিলো না কিন্তু আমি সবসময় সর্বোচ্চ পর্যায়ে প্রতিযোগিতা করতে চেয়েছি। আপনি হয়তো কখনো জিতবেন আবার কখনো হেরে যাবেন। কিন্তু আপনাকে সবসময় জেতার চেষ্টা করতে হবে, আর আমি এটাই করতে চেয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় জানতাম যে মৌসুম শেষে ফ্রি হয়ে যাব। বোর্ড প্রেসিডেন্টও সবসময় বলে এসেছে যে, মৌসুম শেষে আমি যেকোনো জায়গায় যেতে পারব, যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারব। মূলত রোমা, লিভারপুল ও লিসবনে ভয়ঙ্কর ফলাফলের পর আমি এ সিদ্ধান্ত (চলে যাওয়া) নিতে বাধ্য হই। ওরা (বার্সা বোর্ড) দাবি করছে আমি কেন জুনের ১০ তারিখের আগে কিছু জানাইনি। অথচ সেই সময়ে আমরা লিগ এবং সবধরনের প্রতিযোগিতার মাঝপথে ছিলাম। করোনাভাইরাসের কারণে লিগও পিছিয়ে গিয়েছিল। তাই এখন অনেকটা বাধ্য হয়েই আমি এ মৌসুমটা খেলব। অন্যথায় আমাকে ক্লাব ছাড়তে হলে ৭০০ মিলিয়ন ইউরো বাই আউট ক্লজ দিতে হবে যেটা একেবারেই অসম্ভব একটা বিষয়।’

বার্সেলোনা ছাড়তে চাইলে আরও একটি উপায় ছিল মেসির সামনে। তবে সেদিকে মেসি যেতে চাননি। বলেন, ‘আরেকটা উপায় ছিল। সেটা হচ্ছে কোর্টে গিয়ে মামলা করা। কিন্তু আমি সে দিকে একেবারেই যাব না। কারণ, আমি বার্সাকে ভালোবাসি। আমি কখনোই বার্সেলোনার বিপক্ষে মামলায় যেতে চাই না। আমি যখন থেকে এখানে এসেছি এ ক্লাবই আমাকে সবকিছু দিয়েছে। বার্সা আমার জীবনের মতোই প্রিয় এবং এখানেই আমি আমাকে খুঁজে পেয়েছি। বার্সা আমাকে সব কিছু দিয়েছে ও আমিও বার্সাকে সব কিছু দিয়েছি। তাই কখনোই আমার মাথায় ক্লাবের বিপক্ষে কোর্টে যাওয়ার চিন্তা আসেনি।’

পরিবারের কথা উল্লেখ করে মেসি বলেন, ‘মাতেও (মেসির সন্তান) এখনো অনেক ছোট, সে তেমন কিছু বুঝতে পারছে না। তবে থিয়াগো টিভিসহ আশেপাশের অনেক কিছুই দেখছে। সে অনেকবার আমাকে বলেছে, বাবা যেও না। সত্যি বলতে এটা আসলেই অনেক বেশি কষ্টের ছিল। আমি বার্সাকে ভালোবাসি এবং জানি এর চেয়ে ভালো জায়গা আর কোথাও পাব না। কিন্তু তবুও বলব, আমার যেকোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার রয়েছে। আমি নতুন কিছু অর্জন করতে চেয়েছিলাম।’

মেসি আরও বলেন, ‘আমার বাচ্চারা এখানেই বড় হয়েছে। আমার পরিবারও এখানে অভ্যস্ত হয়েছে। কিন্তু তারপরও আমি বলব, ক্লাব ছাড়তে চাওয়া দোষের কিছু না। এটা আমার দরকার ছিল, ক্লাবেরও দরকার ছিল। উভয়পক্ষই এটাতে উপকৃত হতো। আর হ্যাঁ, আমার স্ত্রীকে ধন্যবাদ। কারণ, সে সকল কষ্ট বুকে চেপে রেখেও আমাকে পুরোটা সময় সমর্থন দিয়ে গেছে।’

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

বার্সেলোনাতেই থাকছেন মেসি

বার্সেলোনাতেই থাকছেন মেসি

মেসিকে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার দেওয়া উচিৎ : রামোস

মেসিকে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার দেওয়া উচিৎ : রামোস

এক নজরে লিওনেল মেসির কীর্তি

এক নজরে লিওনেল মেসির কীর্তি

‘ব্রাজিলে নেইমারের চেয়ে মেসির জনপ্রিয়তা বেশি’

‘ব্রাজিলে নেইমারের চেয়ে মেসির জনপ্রিয়তা বেশি’