একই দিনে বিধ্বস্ত লিভারপুল-ইউনাইটেড, ইতিহাসে প্রথম

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৩:১৭ পিএম, ০৫ অক্টোবর ২০২০
একই দিনে বিধ্বস্ত লিভারপুল-ইউনাইটেড, ইতিহাসে প্রথম

প্রিমিয়ার লিগে রোববার একই দিনে দুই হেভিওয়েট দল বড় পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পেয়েছে। চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে ৭-২ গোলে বিধ্বস্ত করে চমক দেখিয়েছে অ্যাস্টন ভিলা। আর অন্যদিকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে হোসে মরিনহোর টটেনহ্যাম হটস্পার।

প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে দুই শীর্ষ দলের এতো বড় ব্যবধানের পরাজয় এটাই প্রথম। এর মাধ্যমে ইংলিশ ফুটবলের ইতিহাসে অন্যতম দুই সফল ক্লাব লিভারপুল ও ইউনাইটেড বড় লজ্জার জন্ম দিল। প্রিমিয়ার লিগে এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো ইউনাইটেড কোন দলের কাছে ছয় গোল হজম করলো।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইউনাইটেডর এ লজ্জাজনক ইতিহাস জন্ম দেওয়ার পর ভিলা পার্কে লিভারপুল ১৯৬৩ সালের পর প্রথমবারের মতো সাত গোলের লজ্জায় ডুবলো।

১৯৮৬ সালের পর প্রথমবারের মতো ইউনাইটেড মৌসুমের প্রথম দুটি হোম ম্যাচে পরাজয়ের স্বাদ পেল। একই সাথে ২০১১ সালের পর ওলে গানার সুলশারের গায়ে নিজেদের মাঠে ম্যানেজার হিসেবে সবচেয়ে বড় পরাজয়ের তকমাটা সেঁটে গেল।

লিভারপুলকে বিধ্বস্ত করতে ওলি ওয়াটকিন্স একাই যথেষ্ট ছিলেন। ৮৮ বছরর ইতিহাসে ভিলার প্রথম কোন খেলোয়াড় হিসেবে রেডসের বিপক্ষে হ্যাটট্রিকের রেকর্ড গড়েছেন ২৪ বছর বয়সী এ ইংলিশ অ্যাটাকার। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে লিভারপুল গোলরক্ষক আদ্রিয়ানের ভুলে ভিলাকে এগিয়ে দেন ওয়াটকিন্স।

এ নিয়ে লিগে তিনটি ম্যাচের প্রতিটিতেই জয় তুলে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভিলা। অন্যদিকে চার ম্যাচে মৌসুমের প্রথম পরাজয়ে লিভারপুল নেমে গেলে পঞ্চম স্থানে। তবে ইতোমধ্যেই চার ম্যাচে ১১ গোল হজম করা রেডসের রক্ষণভাগ নিয়ে ক্লপকে নতুন করে ভাবতেই হচ্ছে।

লিভারপুলের রেকর্ড সৃষ্টিকারী এ পরাজয়ের মাত্র ঘণ্টাখানেক আগে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে আরেকটি ইতিহাস রচনা করে ফেলেছিল মরিনহোর টটেনহ্যাম। ২০১৮ সালে ইউনাইটেড থেকে বহিষ্কৃত মরিনহো যেন এ দিনটির অপেক্ষাই করছিলেন। অথচ ব্রুনো ফার্নান্দেসের পেনাল্টিতে ম্যাচের দুই মিনিটেই এগিয়ে গিয়েছিল ইউনাইটেড। তবে এরপর আর ঘুড়ে দাঁড়াতে পারেনি সুলশারের দল।

১৯৫৭ সালের পর এই প্রথমবারের মতো লিগের কোন ম্যাচে প্রথমার্ধেই চার গোল হজম করে বসে। চতুর্থ মিনিটেই টানগাই এডোম্বেলের গোলে সমতা ফেরায় স্পার্সরা। সাত মিনিটে হ্যারি কেনের ফ্রি-কিক থেকে স্পার্সদের এগিয়ে দেন দক্ষিণ কোরিয়ান ফরোয়ার্ড সন হেয়াং-মিন।

২৮ মিনিটে এরিক লামেলাকে বাজেভাবে ফাউলের অপরাধে অ্যান্থনি মার্শাল লাল কার্ড পেলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় স্বাগতিক ইউনাইটেড। আর এতেই স্পার্সদের বড় জয়ের পথ আরও প্রশস্ত হয়। শেষ পর্যন্ত ৬-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন তারা।

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

জয়ের এটাই একমাত্র কারণ : সালাউদ্দিন

জয়ের এটাই একমাত্র কারণ : সালাউদ্দিন

২৮ দিনের জন্য ঝুলে গেল তাবিথ-মহিউদ্দিনের ভাগ্য

২৮ দিনের জন্য ঝুলে গেল তাবিথ-মহিউদ্দিনের ভাগ্য

চতুর্থবারের মতো বাফুফের সভাপতি হলেন কাজী সালাউদ্দিন

চতুর্থবারের মতো বাফুফের সভাপতি হলেন কাজী সালাউদ্দিন

প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ড দলে লুইন-সাকা-বার্নেস

প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ড দলে লুইন-সাকা-বার্নেস