আইসিসির সদর দপ্তর : মরুভূমিতে এক ফুটন্ত গোলাপ

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৪:৪১ এএম, ১৩ মে ২০২০
আইসিসির সদর দপ্তর : মরুভূমিতে এক ফুটন্ত গোলাপ

বর্তমান বিশ্বে ক্রিকেট জনপ্রিয় একটি খেলা। বিশ্বের ন্যায় ক্রমেই বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলার জায়গা দখল করে নিয়েছে ক্রিকেট। জনপ্রিয় এ খেলার আন্তর্জাতিক ইভেন্ট নিয়ন্ত্রয় করে ‘ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল’: যা আইসিসি নামে পরিচিত।

আইসিসি’র সদর দপ্তর মরুভূমির দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে স্পোর্টস সিটিতে অবস্থিত। মূলত একজন ক্রীড়া সংগঠক ও ক্রিকেট প্রেমী হিসেবে অনেক আগে থেকেই আমার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু ছিল আইসিসি সদর দপ্তর পরিদর্শনের। সুযোগটা ব্যাটে-বলে মিলে যায় ২০১৯ সালের ২৬ ডিসেম্বর।

আন্তর্জাতিক ক্রীড়া সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হিসেবে ৫ দিনের সফরে দুবাইয়ে অবস্থান করি। মূলত সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয় ২৮ ডিসেম্বর এবং ২৯ ডিসেম্বর সকালে মূল শহর থেকে বের হই আইসিসি সদর দপ্তর পরিদর্শনে। অবশ্য বাংলাদেশে থাকা অবস্থাতেই সদর দপ্তর পরিদর্শনে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে রাখা হয়।

মূল শহর থেকে মাত্র ১০ কিলোমিটার দূরে দুবাই স্পোর্টস সিটি সেন্টার, আর দুবাই স্পোর্টস সিটির দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম থেকে মাত্র চার মিনিটের দূরে অবস্থিত আইসিসি সদর দপ্তর। যেখানে রয়েছে বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্রিকেট সুবিধাসহ আইসিসি ক্রিকেট একাডেমি।

দেখতে অনেকটাই বাংলাদেশের বিকেএসপির মতো। তবে সেখানে রয়েছে আধুনিকতার ছোঁয়া। বিশাল একটি হোটেলও রয়েছে। অনেকের কাছে যা এখানকার গেম ভিলেজ, যেখানে একসঙ্গে অন্তত ৩শ’ জন খেলোয়াড় থাকতে পারবেন।

ইতোমধ্যে কাঙ্ক্ষিত দপ্তরের সামনে চলে এসেছি। ভেতরে প্রবেশ করতে করতে জেনে নেই দুবাইয়ে অস্থানের পূর্বে বিশ্ব ক্রিকেট সংস্থাটির সদর দপ্তরের পিছনের ইতিহাস।
sportsmail24

দুবাইয়ে আইসিসির কার্যালয়ের বদলের প্রধান কারণ ছিল একটি কর সহনীয় জায়গায় তাদের সকল কর্মীদের একীভূত করা। দ্বিতীয়ত, দক্ষিণ এশীয় নতুন ক্রিকেট পরাশক্তি কেন্দ্রের কাছাকাছি থাকা। আইসিসি যখন এমসিসি দ্বারা পরিচালিত হতো তখন লর্ডস ছিল পরিচালনার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত জায়গা (১৯৯৩ সাল পর্যন্ত)।

তবে ভারত ও পাকিস্তান ক্রিকেট বিশ্বে নতুন উঠতি শক্তি হিসেবে জানান দিলে কেবলমাত্র ব্রিটিশ সদস্য (এমসিসি) দ্বারা পরিচালনা অযৌক্তিক হয়ে দাঁড়ায়। ফলে ১৯৯৩ সালে নতুন পরিবর্তনের পর কার্যক্রম পরিচালনার জন্য লর্ডস থেকে আরও নিরপেক্ষ জায়গায় স্থানান্তরের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয় এবং ২০০৫ সালে দুবাইয়ে সদর দপ্তর স্থানান্তিত হয়।

ভেতরে প্রবেশ করতেই চোখ কপালে উঠলো, পরিপাটি ও সৌন্দর্য্যের পরতে সাজানো নিচতলায় আইসিসির বড় ইভেন্টগুলোর (আইসিসি, বিশ্বকাপ ও চ্যাম্পিয়নস ট্রফি) রেপ্লিকা ট্রফি দেয়ালে কাচের মূরালে রাখা। অভ্যর্থনা ডেস্কে পরিচয় দিতেই দোতলায় যেতে বলা হলো। সেখানে আমাকে স্বাগতম জানালেন আইসিসির উন্নয়ন কর্মকর্তা ইকবাল। তিনি সাথে করে দোতলায় যা কিছু রয়েছে ঘুরে ঘুরে দেখালেন এবং বিস্তারিত বললেন। দারুণ একটা সময় কাটালাম তার সাথে।

ভদ্রলোক একি সাথে বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভূয়সী প্রশংসা করলেন। সত্যিই খুবি গর্ববোধ হচ্ছিল তখন। তিনতলা বিশিষ্ট সদর দপ্তরটির দ্বিতীয় তলায় চারটি সভা কক্ষ রয়েছে। কক্ষগুলো যথাক্রমে ক্রিকেটের চার কিংবদন্তি- ভারতের শচীন টেন্ডলকার, ইংল্যান্ডের ডব্লিউ. জি. গ্রেস, অষ্ট্রেলিয়ার ডোনাল্ড ব্র্যাডম্যান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের গ্যারি সোবার্স-এর নামে নামকরণ করা। এছাড়া ৩২টি অফিস রুম, একটি বোর্ড রুম এবং একটি প্রেস কনফারেন্স রুম রয়েছে। পুরো ভবনেই দেয়ালে টাঙানো রয়েছে ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট স্মরণীয় মুহূর্তের বাঁধাই করা ছবি।

দেখতে দেখতে প্রায় ২ ঘণ্টা অতিবাহিত হলো। ইকবাল ভাইকে ধন্যবাদ জানালাম ও আমাদের ময়ূরপঙ্খীর বিশেষ সুভিনিউরটি উপহার হিসেবে দিলাম, দারুণ খুশি হলেন তিনি। অসাধারণ কিছু ভালোলাগা মুহূর্ত পার করলাম। একেই বলে এক ঢিলে দুই পাখি মারা। এক দিকে ইচ্ছেপূরণ আর অন্যদিকে আইসিসির সদর দপ্তর পরিদর্শনে অনেক তথ্যও জানা হলো। সত্যিই বলতে আইসিসির সদর দপ্তর যেন মরুভূমির বুকে এক ফুটন্ত গোলাপ।

লেখক : রুহিত সুমন
প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, ময়ূরপঙ্খী শিশু-কিশোর সমাজকল্যাণ সংস্থা ও ময়ূরপঙ্খী ইয়ুথ এন্ড স্পোর্টস কাউন্সিল
ruhitsumon@gmail.com

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব স্থগিত

নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব স্থগিত

সাকিবের ঘূর্ণিতে ঘুরেছিল অস্ট্রেলিয়া

সাকিবের ঘূর্ণিতে ঘুরেছিল অস্ট্রেলিয়া

ক্রিকেটে একই ম্যাচে বাবা-ছেলের পাঁচ জুটি

ক্রিকেটে একই ম্যাচে বাবা-ছেলের পাঁচ জুটি

আইসিসিকে দুর্বল বোর্ডগুলোর পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান

আইসিসিকে দুর্বল বোর্ডগুলোর পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান