জেলার ফুটবল লিগে অর্থ বরাদ্দ দিলো সরকার

স্পোর্টস মেইল২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০৫ পিএম, ০৮ এপ্রিল ২০১৮
জেলার ফুটবল লিগে অর্থ বরাদ্দ দিলো সরকার

জেলা পর্যায় থেকে ফুটবলার তুলে আনার ক্ষেত্রে জোর দিলো বাংলাদেশ সরকার। এখন থেকে জেলা পর্যায়ে ফুটবল লিগ আয়োজনে জেলা পর্যায়ে বাৎসরিক তিন লাখ করে টাকা দেয়া হবে। যা দিয়ে লিগ পরিচালনা করবে জেলার সংগঠনগুলো।

জেলায় জেলায় ফুটবল লিগ আয়োজনে আগেও টাকা দিত বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। তবে প্রথমবারের মতো জেলা ফুটবল সংগঠকদের হাতে তুলে দেয়া হলো সরকারি অনুদান। শনিবার (৭ এপ্রিল) বাফুফে ভবনে আয়েজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জেলা সংগঠনগুলোর সংশ্লিষ্টদের এ সুসংবাদ দেয়া হয়। একই সঙ্গে তাদের হাতে এক লাখ টাকার চেক তুলে দেয়া হয়।

জানা গেছে, প্রথমবারের মতো সরকার জেলার ফুটবল লিগ করতে ১ কোটি ৪৭ লাখ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। বাফুফে ৬২ জেলাকে ৩ লাখ টাকা করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তাতে বাফুফেকে এ খাতে যোগ করতে হবে আরও ৩০ লাখ টাকা।
Bafufe
৬৪ জেলার মধ্যে কিশোরগঞ্জ ও সুনামগঞ্জে জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (ডিএফএ) নেই। ফলে সরকারি এ অনুদান পাচ্ছে বাকি ৬২ জেলা। বাফুফের এ আয়োজনে ৫৭ জেলার ফুটবল কর্মকর্তারা উপস্থিত হয়েছিলেন। জেলাগুলোকে লিগ শুরু করতে প্রাথমিকভাবে ১ লাখ টাকা করে দেয়া হয়। বাকি ২ লাখের ১ লাখ দেয়া হবে লিগ শুরুর পর এবং বাকি ১ লাখ লিগ শেষে।

দুপুরে অনুষ্ঠিত সভায় মতবিনিময় করেন বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন। এ সময় জেলার কর্মকর্তাদের আশ্বাস দেয়া হয়, অর্থের পাশপাশি খেলোয়াড়দের উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য ফুটবল প্রশিক্ষক প্রেরণসহ অন্যান্য সহযোগিতা করবে বাফুফে।

সভা শেষে স্পোর্টসমেইল২৪.কম -এর কথা হয় শেরপুর জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সাথে। জেলার সভাপতি মানিক দত্ত বলেন, সরকারের এ উদ্যোগ জেলা পর্যায়ের জন্য অনেক ভালো হলো। বছরে তিন লাখ করে টাকা দিয়ে আমরা খেলা চালাতে পারবো। এতে আশা করি তৃণমূল পর্যায় থেকে খেলোয়াড় ওঠে আসবে।

তিনি আরও বলেন, আমারা আগেও বাফুফে থেকে অর্থ পেতাম। এবারই প্রথম সরকারি অনুদান হিসেবে অর্থ পেলাম। তবে আগে টাকা পেলেও বরাদ্দের পুরো অর্থ পেতে সমস্যা হতো। যার জন্য খেলা চালানো কষ্টকর হতো। এখনও যেন এটা না হয় সেদিকে বাফুফেকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে।

শেরপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক হাকিম বাবুল স্পোর্টসমেইল২৪.কমকে বলেন, তৃণমূল পর্যায় থেকে ফুটবলার তুলে আনার সরকারের এটা একটা ভালো উদ্যোগ। সভায় জানানো হয়, এখন থেকে প্রতি বছর প্রতি জেলায় তিন করে টাকা বরাদ্দ দেয়া হবে। এছাড়া প্রয়োজনে বাফুফের নিজস্ব কোচ পাঠিয়ে সংশ্লিষ্ট জেলায় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে।


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

বাংলাদেশের সাবিনার জোড়া গোলে সেমিতে সেথু এফসি

বাংলাদেশের সাবিনার জোড়া গোলে সেমিতে সেথু এফসি

কমনওয়েলথ গেমসে পদক পেল বাংলাদেশ

কমনওয়েলথ গেমসে পদক পেল বাংলাদেশ

মহিলা হ্যান্ডবলে ৩য় বাংলাদেশ

মহিলা হ্যান্ডবলে ৩য় বাংলাদেশ

স্বাগতিক হংকংকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েরা

স্বাগতিক হংকংকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েরা