কোহলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ স্মিথ

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ১১:০৭ এএম, ০৩ জুন ২০২০
কোহলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ স্মিথ

ফাইল ছবি

আধুনিক ক্রিকেটে সময়ের সেরা দুই ক্রিকেটার ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। দু’ জনের মধ্যে কে সেরা? কোহলি নাকি স্মিথ? তা নিয়ে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের চায়ের দোকানে তুফান বয়ে যায়।

অথচ এই তুলনা নিয়ে বিন্দুমাত্র মাথাব্যথা নেই তাদের দুজনের। দু’ দেশের দুই তারকা একে অপরের প্রতি দারুণ শ্রদ্ধাশীল। গত বিশ্বকাপে ভারত-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে দর্শকরা স্লেজ করছিলেন স্মিথকে। আর তখন অজি তারকার পাশে দাঁড়িয়ে দর্শকদের থামিয়েছিলেন কোহলি। এবার কোহলিকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন স্মিথ।

তিনি বলেন, ‘আমি বিরাটকে খুব পছন্দ করি। দুর্দান্ত ক্রিকেটার ও (কোহলি)। অবিশ্বাস্য রেকর্ড বিরাটের। ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য অনেক কিছু করেছে বিরাট। প্যাশন দিয়ে খেলে ও। ভারতের ক্রিকেটেও সেই প্যাশনটাই দেখা যায়।’

স্মিথের মতে, প্রতিমুহূর্তে উন্নতির চেষ্টা করে বিরাট। গত কয়েক বছরে ওর চেহারাও অনেক বদলেছে। অত্যন্ত ফিট ক্রিকেটার এবং সেই সঙ্গে শক্তিশালীও বটে। ক্রিকেটের সম্পদ বিরাট।

ওয়ানডে ক্রিকেটে পরে ব্যাট করতে নেমে দারুণ রান তাড়া করতে পারেন কোহলি। রান তারা করা যেন তার নেশা হয়ে গিয়েছে। রান তাড়া করতে নামলেই তার ব্যাটে রানের বন্যা বয়। আর সেই কারণে তার নাম হয়ে গিয়েছে ‘চেজমাস্টার’।

এ ব্যাপারে স্মিথ বলেন, ‘সাদা বলের ক্রিকেটে যে ভাবে বিরাট রান তাড়া করে, তা দুর্দান্ত। চাপের মুখে শান্ত থাকে, নিজের কাজটা সম্পূর্ণ করে বেশিরভাগ সময়েই ফেরে। এ রকম একজনকে ভাল না লেগে উপায় আছে।’

[sportsmail24.com এর ওয়েবসাইট এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও ব্রাউজ করে পড়তে পারবেন। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস থেকেও খেলাধুলার সকল নিউজ পড়তে পারবেন। ইনস্ট্রল করুন স্পোর্টসমেইল২৪.কমের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

বিশ্বকাপে সেরা মুহূর্তের খেতাব জিতলো বাংলাদেশ

বিশ্বকাপে সেরা মুহূর্তের খেতাব জিতলো বাংলাদেশ

তামিমের ভালো অধিনায়ক হওয়ার সামর্থ্য আছে : মাঞ্জেরেকার

তামিমের ভালো অধিনায়ক হওয়ার সামর্থ্য আছে : মাঞ্জেরেকার

জুলাইয়ে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট সিরিজ

জুলাইয়ে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট সিরিজ

মাদুশঙ্কাকে সুযোগ দিতে বলছেন মালিঙ্গা

মাদুশঙ্কাকে সুযোগ দিতে বলছেন মালিঙ্গা