রেকর্ড গড়েও ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হলো পাকিস্তান

স্পোর্টসমেইল২৪ স্পোর্টসমেইল২৪ প্রকাশিত: ০৯:০২ এএম, ১৪ জুলাই ২০২১
রেকর্ড গড়েও ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হলো পাকিস্তান

অধিনায়ক বাবর আজমের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে পাহাড়সহ ৩৩১ রান করেছিল পাকিস্তান। তাতেও শেষ রক্ষা হয়নি। জেমস ভিন্সের প্রথম সেঞ্চুরি এবং লুইস গ্রেগরির ফিফটিতে দুই ওভার বাকি থাকতেই পাকিস্তানকে হারিয়ে দিয়েছে ইংল্যান্ড। এ জয়ে তিন ম্যাচে ওয়ানডে সিরিজে সফরকারীদের পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করেলো ইংল্যান্ড।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) বার্মিংহ্যামে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ৩৩১ রানের সংগ্রহ গড়ে পাকিস্তান। প্রথম দুই ম্যাচে সিরিজ খোয়ানোর পর হোয়াইটওয়াশ থেকে বাঁচার ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা ১৫৮ রানের ইনিংস খেলেন বাবর আজম।

তবে ৩৩২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১২ বল বাকি থাকতেই ৭ উইকেটে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় স্বাগতিকরা। ব্যাট হাতে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন জেমস ভিন্স। এছাড়া লুইস গ্রেগরি খেলেন ৭৭ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস।

পাকিস্তানকে তিন ম্যাচ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করায় আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগে মূল্যবান ৩০ পয়েন্ট অর্জন করলো ইংল্যান্ড।

রান তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত শুরুর পর দ্বিতীয় ওভারেই ডেভিড মালানকে হারায় ইংল্যান্ড। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে খালি হাতে ফিরেন তিনি। তবে অন্যপ্রান্তে থাকা ফিল সল্টের ব্যাটে আসছিল রান। বল হাতে সপ্তম ওভারে তাকেও বিদায় করেন হারিস রউফ। ২২ বলে ৭ চারটি ৩৭ রান করেন সল্ট।

১৬৫ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে বসে ইংল্যান্ড। তবে ষষ্ঠ উইকেটে ভিন্সের সঙ্গে গ্রেগরির ১২৯ জুটিতে এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড। ভিন্সের সেঞ্চুরিতে জয়ের কক্ষপথে উঠে ইংল্যান্ড। তবে ভিন্স আর বেশি দূর যেতে পারেননি। ৯৫ বলে ১১ চারে ১০২ রান করে সাজঘরে ফিরেন তিনি।

৬৯ বলে তিন ছক্কা ও ছয় চারে ৭৭ রান করে গ্রেগরি যখন বিদায় নেন জয়ের জন্য ইংল্যান্ড তখন প্রয়োজন ৩২ রান। বাকি ছিল ৩৫ বল। ফলে বাকিটা কাজটুকু সহজেই সারেন ক্রেইগ ওভারটন এবং কার্স। দুই ওভার (১২ বল) বাকি থাকতেই ৩৩২ রান তুলে জয় নিশ্চিত করেন তারা।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার ফাখর জামান ৬ রানে সাজঘরে ফিরলে দলীয় ২১ রানেই উইকেট হারায় পাকিস্তান। এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে অপর ওপেনার ইমাম উল হক এবং বাবর আজম ৯২ রানের জুটি গড়েন। ৭৩ বলে ৭ বাউন্ডারিতে ৫৬ রান করে ইমাম ফিরলে তাদের জুটি ভাঙে।

এরপর মোহাম্মদ রিজওয়ানকে নিয়ে ইনিংসের সবচেয়ে বড় জুটি গড়েন বাবর। ২০ ওভারে তারা যোগ করেন ১৭৯ রান। তাদের এই জুটিতেই তিনশ রানের দ্বারপ্রান্তে (২৯২)। ৫৮ বলে ৪ চারে ৭৪ রানের ইনিংস খেলে রিজওয়ান।

রিজওয়ান চলে যাওয়ার পর দ্রুতই বেশ কয়েকটি উইকেট হারায় সফরকারীরা। শেষ ৬ উইকেট থেকে আসে মাত্র ২৬ রান। অধিনায়ক বাবর আজম থামেন ১৫৮ রানে। ক্যারিয়ার সেরা এ ইনিংস খেলতে ১৩৯ বলে ১৪টি চার এবং চারটি ছক্কা মারেন তিনি।

বাবরের এই ইনিংস পাকিস্তানের প্রথম কোন অধিনায়কের দেড়শ ছোঁয়া ইনিংস। একই সাথে ইংল্যান্ডের পাকিস্তানের যেকোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রানের ইনিংসের রেকর্ড।

অন্যদিকে, বার্মিংহামে এই প্রথম তিন শতাধিক রান তাড়া করে কোন দলের জেতার রেকর্ড গড়েছে ইংল্যান্ড। এর আগে ১৯৯৩ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২৭৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ২৮০ তুলে জয় তুলে নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া।

স্পোর্টসমেইল২৪/আরএস

[sportsmail24.com এখন sportsmail.com.bd ঠিকানাতেও। খেলাধুলার ভিডিও-ছবি এবং  সর্বশেষ সংবাদ পড়তে ব্রাউজ করুন যেকোন ঠিকানায়। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে ইনস্ট্রল করে নিতে আমাদের অ্যাপস ]


শেয়ার করুন :


আরও পড়ুন

পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার সাথে বিশ্বকাপ আয়োজনে রাজি বাংলাদেশ

পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার সাথে বিশ্বকাপ আয়োজনে রাজি বাংলাদেশ

নতুন নিয়মে মাঠে গড়াবে দ্য হান্ড্রেড

নতুন নিয়মে মাঠে গড়াবে দ্য হান্ড্রেড

প্রয়াত সতীর্থকে ইউরোর শিরোপা উৎসর্গ করলো ইতালি

প্রয়াত সতীর্থকে ইউরোর শিরোপা উৎসর্গ করলো ইতালি

আবারও পাকিস্তানের বড় পরাজয়, সিরিজ জিতলো ইংল্যান্ড

আবারও পাকিস্তানের বড় পরাজয়, সিরিজ জিতলো ইংল্যান্ড